ঢাকা, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ১০:২৫

প্রিন্ট

ট্রেনে চেপে লাশ হয়ে ফিরলেন দম্পতি

ট্রেনে চেপে লাশ হয়ে ফিরলেন দম্পতি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনে চড়ে শ্রীমঙ্গল থেকে চাঁদপুরে নিজেদের বাড়িতে ফিরছিলেন মুজিবুর রহমান (৫০) ও তাঁর স্ত্রী কুলসুম আরা বেগম (৪৮)। বাড়ি তারা ফিরলেন ঠিকই, কিন্তু লাশ হয়ে।

গত সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত হন মুজিবুর–কুলসুম দম্পতি। তারা উদয়ন এক্সপ্রেসের যাত্রী ছিলেন। তাদের বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার রাজারগাঁও উত্তর ইউনিয়নের রাজারগাঁও গ্রামে।

দুর্ঘটনায় নিহত ১০ জনের লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বায়েক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বারান্দায় রাখা হয়। মা–বাবার মৃত্যুর খবর পেয়ে স্কুলমাঠে ছুটে এসে দুই ভাই কাওসার (২৮) ও সবুজ (২৪)হাউমাউ করে কাঁদছিলেন।

মুজিবুর–কুলসুমের তিন ছেলে। এদের মধ্যে কাওসার বড়। সবুজ ঢাকায় একটি আইসক্রিম কারখানায় কাজ করেন। আর ছোট ছেলে ইয়াসিন (১৮)।

বড় ছেলে কাওসার বলেন, তার মা–বাবা উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনে শ্রীমঙ্গল থেকে চাঁদপুরে ফিরছিলেন। সোমবার রাত আটটার দিকে শ্রীমঙ্গল থেকে ট্রেনে চেপেছিলেন তারা।

তিনি বলেন, রাত আটটার দিকে তার মায়ের সঙ্গে সর্বশেষ মুঠোফোনে কথা হয়। মা বলেছিলেন, তারা রওনা হয়েছেন। ছেলেকে দুশ্চিন্তা করতে বারণ করলেন। এর আগের দিন বাবার সঙ্গেও কথা হয়েছিল তার।

মুজিবুর রহমানের ভাই আইয়ুব বলেন, তাদের চার ভাইয়ের মধ্যে মুজিবুর ছিলেন সবার বড়। তিনি ঢাকা থেকে প্রসাধনসামগ্রী কিনে শ্রীমঙ্গলে বিক্রি করতেন। ২৫ বছর ধরে শ্রীমঙ্গল স্টেশন এলাকার কাছে একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। আর ফেরি করে প্রসাধনসামগ্রী বিক্রি করতেন। স্ত্রী কুলসুম ও দুই ছেলে চাঁদপুরে গ্রামের বাড়িতে থাকতেন। এক সপ্তাহ আগে স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে শ্রীমঙ্গল গিয়েছিলেন কুলসুম। গতকাল তারা দুজন একসঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন। আর এই বাড়ি ফেরাই তাদের নিয়ে যায় না ফেরার দেশে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসবি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত