ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৪০

প্রিন্ট

ক্লাসে ঢুকে প্রাথমিক শিক্ষিকার হাত ভাঙলেন দম্পতি

ক্লাসে ঢুকে প্রাথমিক শিক্ষিকার হাত ভাঙলেন দম্পতি
ফাইল ফটো
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

মেয়েকে বকাঝকা করায় ক্লাসে ঢুকে পিটিয়ে নারী শিক্ষকের হাত ভেঙে দিয়েছেন এক দম্পতি। আহত ওই শিক্ষক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত সোমবার দুপুরের দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরশহরের আড়পাড়া শিবনগর সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্তরা হলেন- আড়পাড়া শিবনগর এলাকার আব্দুল আলিম ও তার স্ত্রী নূরজাহান। এ ঘটনায় নূরজাহানকে আটক করেছে পুলিশ।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অর্চণা রাণী জানান, ক্লাসে মনোযোগী না হওয়ায় সকালে জুয়াইরিয়া লাবিবা নামে দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে বকাঝকা করেন ওই শিক্ষক। দুপুরে ছুটির পর বাড়ি গিয়ে মা-বাবাকে বলে লাবিবা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিকেলে তার মা-বাবা স্কুলে এসে ক্লাসে ঢুকে ওই শিক্ষককে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেন।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে আব্দুল আলিম জানান, তার মেয়েকে মারার কারণে তিনি স্কুলে যান। সেখানে শিক্ষকের কাছে কারণ জানতে চাইলে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে ধাক্কাধাক্কি হয়। এ সময় ওই শিক্ষক পড়ে গেলে হাতে আঘাত লাগে। তাকে পেটানো হয়নি।

উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন জানান, ক্লাস চলার সময় কোনো কিছু ঘটলে শিশুরা ভয় পায়। ওই অভিভাবকের কোনো কথা থাকলে তিনি সংশ্লিষ্ট দফতরে অভিযোগ দিতে পারতেন। তা না করে শিক্ষকের গায়ে হাত তুলেছেন।

প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি উপজেলা শাখার সভাপতি জগদ্বীশ চন্দ্র বলেন, শিক্ষকের হাত ভেঙে দেয়াটা অমানবিক। অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে থানায় ও ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

কালীগঞ্জের ইউএনও সূবর্ণা রাণী সাহা বলেন, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর কালীগঞ্জ থানার ওসিকে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত নূর জাহানকে আটক করা হয়েছে। আব্দুল আলিমকে আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত