ঢাকা, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:৩১

প্রিন্ট

চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ধরা ২ ভুয়া সাংবাদিক

চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ধরা ২ ভুয়া সাংবাদিক
ভোলা প্রতিনিধি

ভোলায় বাল্য বিয়ের বৈধতার কথা বলে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে দুই কথিত সাংবাদিক পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। সোমবার রাতে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে।

আটক সাংবাদিকরা হলেন- অর্জুন চন্দ্র দে (৪০) ও তার সহকারি ফটো সাংবাদিক রাসেল (২৫)।

স্থানীয়রা জানান, ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনয়নের স্লুইজগেইট এলাকায় সোমবার দুপুরে শানু সরদারের মেয়ের বিয়ের আয়োজন চলে। এসময় স্থানীয় একটি অনলাইন পত্রিকার কথা বলে ভুয়া দুই সাংবাদিক সুমন ও পারভেজ ওই বিয়ে বাড়িতে গিয়ে বাল্য বিয়ে হচ্ছে বলে পাঁচহাজার টাকা দাবি করেন। এ সময় স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় ১৫০০ টাকা দিলে তারা চলে যায়।

এ ঘটনার কিছু সময় পর আটককৃত ওই দুই সাংবাদিকও বিয়ে বাড়িতে গিয়ে পাঁচহাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। একইসঙ্গে ভয়ভীতিও দেখায়। তখন মেয়ে পক্ষ জানায় তাদের মেয়ের বাল্য বিয়ে হচ্ছে না। তারপরও তারা ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা দাবি করতে থাকে।

এসময় স্থানীয় মেম্বার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান। তাদেরকে সাংবাদিক হিসাবে কেউ চিনতে না পারায় সন্দেহ হলে তাদের আটকে রেখে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেয়া হয়। পরে রাত ৯টার দিকে কথিত ওই দুই সাংবাদিককে আটক করে ভোলা সদর মডেল থানার পুলিশ।

এ ব্যাপারে ভোলা থানার এসআই শেখ ফরিদ বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘আটককৃতরা নিজেদের সাংবাদিক পরিচয় দিয়েছেন। তবে তাদের কাছ থেকে কোন পরিচয় পত্র পাওয়া যায়নি। তাদের কাছ থেকে একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে একটি চাঁদাবাজি মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

এদিকে অভিযোগ রয়েছে, বেশকিছুদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে ভোলা সদর উপজেলা অনলাইন প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিক হিসাবে পরিচয় দিয়ে আসছিলো।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন আগে ভোলা জেলা আইনশৃঙ্খলা সভায় ভোলায় অনলাইনে ও ফেসবুকে ফেক আইডির মাধ্যমে ভুয়া হলুদ সাংবাদিকতার বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় এবং এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দাবি ওঠে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত