ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৫:০০

প্রিন্ট

আজ থেকে সোনার ভরি ৫৬ হাজার ৮৬২ টাকা

আজ থেকে সোনার ভরি ৫৬ হাজার ৮৬২ টাকা
অনলাইন ডেস্ক

ফের বেড়েছে স্বর্ণের দাম। আজ থেকে ভরি-প্রতি স্বর্ণের দাম গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫৬ হাজার ৮৬২ টাকা। এ নিয়ে গত এক মাসের মধ্যে তিন দফায় বেড়েছে স্বর্নের দাম। ঘন ঘন ই জনপ্রিয় ধাতুটির দাম বাড়ার ফলে বিপাকে পড়েছেন বাংলাদেশের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা।

পুরনো ঢাকার তাঁতী বাজারে বহুদিনের পারিবারিক ব্যবসা দেখাশোনা করছেন ঢাকা স্বর্ণ শিল্পী শ্রমিক সংঘের কার্যকরী সদস্য বাবুল দাস। তিনি জানান, গত এক মাসে তাদের কাছে নতুন কেনো কাজের অর্ডার আসেনি বললেই চলে। এত ঘন ঘন স্বর্ণের দাম বাড়ায় ব্যবসায় মন্দা যাচ্ছে তার। কেননা অনেক ক্রেতা ভাবছেন, সোনার দাম আরেকটু কমে নাকি দেখি। কমলে বানাবে। কিন্তু দাম কমেনি, উল্টো বেড়েই চলেছে।

বাবুল দাস বলেন, পাকা সোনার বদলে গিনি সোনার দাম বাড়তে দেখায় তারা অবাক হচ্ছেন।

তার ভাষায়, ‘বিষয়টা এমন যেন ঘি’র থেকে তেলের দাম বাড়ছে। পাকা সোনার চেয়ে খাদ দেয়া স্বর্ণের দাম বাড়ছে। কিন্তু হওয়ার কথা উল্টোটা। গিনি সোনার দাম কম হওয়ার কথা।’

বাংলাদেশে গহনার জন্য সবচাইতে জনপ্রিয় ধাতু হচ্ছে স্বর্ণ। সব মিলিয়ে এই বছরের শুরু থেকে সাতবার স্বর্ণের দাম বাড়ল। জানুয়ারি মাসে যে স্বর্ণের দাম ভরি প্রতি ৪৮ হাজার ৯৮৮ টাকা ছিল, সোমবার থেকে ভরি প্রতি সেখানে প্রায় সাত হাজার টাকা বেশি খরচ করতে হবে। বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) রোববার রাতে এই দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

এই বছর জানুয়ারি মাসে দু'দফায় স্বর্ণের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছিল এই সমিতি। নতুন অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণার পর দাম বাড়ানো হয়েছে কয়েক দফা।

স্বর্ণের দাম আবারো কেন বাড়ানো হচ্ছে?

এ সম্পর্কে বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার আগরওয়ালা বলছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে এর দাম বাড়ছে তাই তাদেরও দাম বাড়াতে হচ্ছে।

তিনি দাম বৃদ্ধির একটি ধারণা দিয়ে বলছেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে বছরের শুরু থেকে পর্যায় ক্রমে আউন্স প্রতি স্বর্ণের দাম বেড়েছে আড়াইশ ডলার। বাংলাদেশি টাকায় আনুমানিক একুশ হাজার টাকা। ভরি প্রতি আট হাজার টাকা। কিন্তু আমরা একবারে না বাড়িয়ে পর্যায়ক্রমে বাড়াচ্ছি।’

তিনি বলছেন, বাংলাদেশে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বর্ণ আমদানি শুরু না হলেও যারা লাগেজে করে স্বর্ণ আনেন, তারাও তো আন্তর্জাতিক বাজারের দরেই সেটি কিনে আনেন। তিনি বলছেন, যারা রিসাইকেল করা স্বর্ণ কিনছেন তারাও ওই আন্তর্জাতিক বাজারের দাম অনুসরণ করেন।

তিনি আরো দাবি করেন, চীন-যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য যুদ্ধের কারণেও আন্তর্জাতিক স্বর্ণের বাজারে দাম বাড়ছে। আর স্বর্ণের দাম আরো বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করেছেন তিনি।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত