ঢাকা, সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১:৪১

প্রিন্ট

হেলথকেয়ার হিরোদের সংবর্ধনা দিলো ওয়ালটন

হেলথকেয়ার হিরোদের সংবর্ধনা দিলো ওয়ালটন
ওয়ালটনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা পাওয়া চিকিৎসক ও নার্সদের গ্রুপ ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা মহামারি মোকাবিলায় জীবন বাজি রেখে চিকিৎসাসেবা দেয়া চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সংবর্ধনা দিয়েছে দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর ওয়ালটন করপোরেট অফিসে ‘হেলথকেয়ার হিরোস’ শীর্ষক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন—প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ, বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি‘র সভাপতি অধ্যাপক ডা. এ কে আজাদ খান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেনসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসক, পরিচালক ও নার্স। করোনা মহামারির মধ্যে জীবন বাজি রেখে দায়িত্ব পালনকারী দেশের সব চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞাস্বরূপ ৩০ জন চিকিৎসক ও ৫ জন নার্সকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেয় ওয়ালটন। সেই সঙ্গে প্রত্যেককে দেওয়া হয় অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন। দায়িত্ব পালনের সময় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া দুই চিকিৎসকের পরিবারকে দেয়া হয় ১ লাখ টাকা করে।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, ‘সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে জীবন বাজি রেখে করোনাভাইরাস মহামারির বিভীষিকাময় পরিস্থিতি মোকাবিলা করছেন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। এ সময় কয়েক হাজার চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ‌্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১৫৯ জন চিকিৎসক। তাদের এই বিশাল আত্মত্যাগ প্রশংসার দাবিদার। তাই প্রাতিষ্ঠানিক দায়বদ্ধতা থেকে হেলথকেয়ার হিরোদের সংবর্ধনার দেয়ার এই উদ্যোগ। যারা সংবর্ধনা পেলেন তাদের বাইরে দেশের সব ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও টেকনিশিয়ানদেরও ধন্যবাদ জানাচ্ছে ওয়ালটন।’

করোনা মহামারিতে চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের বিশাল ত্যাগের কথা বিবেচনা করে তাদের বিশেষ সম্মানানা দেওয়ায় ওয়ালটনকে ধন্যবাদ জানান বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, ওয়ালটনকে অনুসরণ করে অন্যান্য ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোও আগামীতে এ ধরনের প্রশংসনীয় উদ্যোগ নেবে।

অনুষ্ঠানে চিকিৎসক ও নার্সরা করোনা মহামারি মোকাবিলায় তাদের আত্মত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ বিশেষ সম্মাননা দেয়ায় ওয়ালটনকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, করোনা সংক্রমণের শুরুতেই সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে ওয়ালটন। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও সাংবাদিকদের মধ্যে বিনামূল্যে বিপুল পরিমাণ প্রোটেকটিভ স্যুট, মেডিক্যাল মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, হেড কভার ও স্যু-কভার, সেফটি গগলস ইত্যাদি সুরক্ষা সরঞ্জাম ও পিপিই সরবরাহ করেছে ওয়ালটন। লকডাউনের সময় ওয়ালটন প্লাজা ও পরিবেশকদের মাধ্যমে দেশের সর্বত্র খাদ্য সামগ্রীসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান বিতরণ করা হয়।

এছাড়া, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৩ কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনকেও অর্থ সহায়তা দিয়েছে ওয়ালটন। প্রত্যেক কর্মীর চাকরির নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি লকডাউনের শুরুতেই কর্মীদের মধ্যে ৭৭ কোটি টাকা প্রফিট বোনাস দিয়েছে ওয়ালটন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত