ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০২০, ১৭:৩৩

প্রিন্ট

প্রাথমিকের শিক্ষক বাছাইয়ে নতুন পদ্ধতি

প্রাথমিকের শিক্ষক বাছাইয়ে নতুন পদ্ধতি
নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রাণঘাতী করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা যেন থেমে না যায় এ কারণে সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে পাঠদান চলছে। সেই আলোকে নতুন আরো বেশকিছু বিকল্প সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। আর এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য কাজও শুরু করেছে অধিদপ্তর।

জানা গেছে, প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য ‘হ্যালো টিচার’ নামে একটি মোবাইল অ্যাপস তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের তৈরি করা এই অ্যাপস দিয়ে শিক্ষার্থীরা পছন্দের শিক্ষক বাছাই করে পরামর্শ নিতে পারবে।

এ ব্যাপারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন বলেন, ‘স্কুল বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের পাঠে মনোযোগী করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। গুগল প্লে-স্টোর থেকে শিক্ষার্থীরা অ্যাপস ডাউনলোড করে তা ব্যবহার করতে পারবে। অভিভাবকরাও ব্যবহার করতে পারবেন।’

বর্তমানে সংসদ টেলিভিশনে প্রচারিত ক্লাস ৫৯ থেকে ৫২ শতাংশ শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে। আর এটা যদি বেতারে শুরু হয় তাহলে আরও ২০ থেকে ২৫ শতাংশের কাছে পৌঁছানো যাবে। তবে জরিপ মতে, ৯৮ শতাংশের বেশি মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। সেক্ষেত্রে অভিভাবকদের ফোন ব্যবহার করে হ্যালো টিচার অ্যাপসের মাধ্যমে শিশুরা তাদের প্রশ্নের উত্তর জানতে পারবে।

এমনকি গণিত, ইংরেজি, বাংলা, বিজ্ঞানসহ নির্দিষ্ট কয়েকটি বিষয়ের শিক্ষক বাছাইও করতে পারবে শিক্ষার্থীরা। টেলিভিশন ও রেডিওতে ক্লাস প্রচারের পর মোবাইল অ্যাপস তৈরি করে শিক্ষার্থীদের আরও কাছে পৌঁছানোর চেষ্টায় রয়েছে মন্ত্রণালয়।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, ‘সরকারের আইসিটি বিভাগ ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্প থেকে অ্যাপস তৈরিতে অধিদপ্তরকে সহায়তা করা হচ্ছে। শিগগিরই অ্যাপসটি চালু করা যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।’

এই অ্যাপস ছাড়াও প্রাথমিকে নতুন আরও সাতটি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলেও মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত