ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ৩১ মার্চ ২০২০, ২২:৫৪

প্রিন্ট

করোনা প্রতিরোধে বাকসাসের আহ্বান

করোনা প্রতিরোধে বাকসাসের আহ্বান

Evaly

বাঙলা কলেজ প্রতিনিধি

মারণভাইরাস করোনাতে ছেয়ে গেছে পুরো পৃথিবী। ভালো নেই বাংলাদেশও। বিশ্ব পরিক্রমায় এ ভাইরাস আঘাত করেছে এই মাতৃভূমিকে। এখন পর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। সরকার এ ভাইরাস ঠেকাতে নিয়েছে নানারকম উদ্যোগ। পিছিয়ে নেই স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনগুলোও। দেশের সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে এককাতারে সবাই নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচার হিসেবে তেমনি আহ্বান জানিয়েছে সরকারি বাঙলা কলেজের সাংবাদিক সংগঠন (বাকসাস)।

বাসসাস’র এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,

প্রিয় দেশবাসী, আশা করি সবাই মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। তবে আমরা জানি আপনারা ভালো থাকলেও মানুষিক প্রশান্তিতে নেই আপনাদের মনে।

করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) এর বিশ্বব্যাপী চালানো তাণ্ডব থেকে আজ আমরাও মুক্ত নই। আপনারা ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জেনেছেন পৃথিবীর ছোট বড় কমবেশি প্রায় ১৯৯টি দেশ এ ভাইরাসে আক্রান্ত। বাদ নেই পরাশক্তিধর রাষ্ট্রগুলোও। যে রাষ্ট্রগুলো ভয়ে গোটা বিশ্ব কাঁপত আজ তারাও কভিড-১৯ এর কাছে ভীত সন্ত্রস্ত।

আক্রান্ত আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ যা আমাদের মত আপনাদের প্রত্যেকের হৃদয়েই রক্তক্ষরণ করে। আজ প্রায় ৭ দিন ধরে আমাদের দেশ আংশিক লকডাউন। কয়েকটি এলাকা তারও আগে থেকে পুরোপুরি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। আশাকরি আপনারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনামত হোম কোয়ারেইন্টাইনে আছেন।

যেখানে অত্যন্ত আধুনিক প্রযুক্তি সম্পূর্ণ রাষ্ট্রগুলো করোনা তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড সেখানে আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশের সৃষ্টিকর্তার প্রতি তাকিয়ে থাকা আর সচেতনতা ছাড়া কিছুই করার নেই।

আমরা অচেনা, অজানা, অপরিচিত এই ভাইরাসের সামনে বড্ড অসহায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বার বার হাত ধৌত করা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা ও বাসার বাইরে না বের হয়েই শুধু এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব।

বাঙলা কলেজ সাংবাদিক সমিতি (বাকসাস) এর পক্ষ থেকে দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ, আপনারা পরাক্রমশালী মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি অগাধ বিশ্বাস রেখে প্রত্যেকের স্ব স্ব ধর্মানুযায়ী প্রার্থনা করুন। সেই সাথে নিজেরা সচেতন হোন এবং অন্যকে সচেতন করুন।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তাদের দায়িত্বপালনে সহযোগিতা করুন। সাধ্যমত আপনার পাশে থাকা দরিদ্র মানুষটিকে সহায়তা করুন। অযথা নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের দাম বৃদ্ধি করবেন না।

মনে রাখবেন, এই মানচিত্রের কোন একটি প্রাণী ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সমগ্র দেশ। তখন আপনি আমি কেউ চাইলেও ভাল থাকতে পারব না। আপনি বা আমি একা না আমরা প্রত্যেকে মিলেই বাংলাদেশ। আপনাদের সচেতনতাই পারে এই মহামারী থেকে ত্রিশ লাখ শহিদ আর দুই লাখ মা বোনের সম্ভ্রমে অর্জিত আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশকে রক্ষা করতে।

১৯৭১ এর যুদ্ধ ছিল ঘরের বাইরে বের হওয়ার, আর এবারের যুদ্ধ গৃহে থাকার। এ যুদ্ধে আমাদের জয় অনিবার্য (ইনশা আল্লাহ)

তাই, আপনাদের প্রত্যেকের কাছে বিনীত অনুরোধ আপনারা কেউ বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাসার বাইরে বের হবেন না। আর হলেও পুরোপুরি নিরাপত্তাসহ বের হবেন। আপনার সচেতনতাই পারে লাখ মানুষ সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি এড়াতে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

shopno
  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
best