ঢাকা, রোববার, ০৭ মার্চ ২০২১, ২২ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২০ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:১১

প্রিন্ট

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

শতবর্ষে ছয়টি গবেষণাধর্মী ওয়েবিনার প্রদর্শন

শতবর্ষে ছয়টি গবেষণাধর্মী ওয়েবিনার প্রদর্শন
ছবি: প্রতিনিধি

ঢাবি প্রতিনিধি

শতবর্ষ উপলক্ষে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক এবং অ্যালামনাইদের নিয়ে গবেষণাধর্মী ছয়টি আন্তর্জাতিক সেমিনারের (ওয়েবিনার) আয়োজন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। আগামীকাল বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রথম আন্তর্জাতিক সেমিনারের উদ্বোধনের পর প্রতিমাসে একটি করে সেমিনার প্রদর্শন করা হবে।

বুধবার সকাল সাড়ে এগারটায় উপাচার্যের অফিস সংলগ্ন অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শতবর্ষপূর্তিতে এসব সেমিনারের কথা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি উপলক্ষে ‘Celebrating the 100 Years of the University of Dhaka: Reflections from the Alumni—International and National’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারের আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এসব সেমিনারে মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বের কাছে তুলে ধরা হবে।

ঢাবি উপাচার্য জানান, প্রধানমন্ত্রীর শুভ উদ্বোধনের পর ২২ ডিসেম্বর থেকে ‘History of the university of Dhaka & Higher Education in Bangladesh’ সেমিনারটি প্রদর্শিত হবে। পরবর্তী জুন মাস পর্যন্ত প্রতি মাসে অনুষ্ঠিত হবে একটি করে ওয়েব মিনার।

ফেব্রুয়ারিতে প্রদর্শন কারা হবে সায়েন্স ফর সোসাইটি (Sciences for Society), মার্চে আর্টস লিটারেচার এন্ড কালচার, (Arts, Literature and Cultur), এপ্রিলে বিজনেস ফর সাসটেইনেবিলিটি (Business for Sustainability), মে সোশাল সায়েন্স ফর লাইফ এন্ড লিভিং (Social Sciences for Life and Living), এবং জুনে ফিউচার অব হায়ার এডুকেশন (Futures of Higher Education)।

ঢাবি উপাচার্য জানান, এসব ওয়েব মিনারে আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি সম্পূর্ণ প্রায় দুইশত বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের সাথে যুক্ত হবে। তদেরকে আমরা ওয়েবিনারের অংশগ্রহণের জন্য চিঠি দিয়েছি। তারা আমাদের সাথে বিভিন্ন এজেন্ডায় অংশগ্রহণ করবেন। ইতোমধ্যে প্রায় ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের সাথে যুক্ত হবেন বলে জানিয়েছেন।

উপাচার্য আরো বলেন, এই ছয়টি ওয়েব মিনারের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল গ্রাজুয়েট একটি প্লাটফর্মে একত্রিত হতে পারবে। ইতোমধ্যে অনেক গ্রাজুয়েট তাদের প্রবন্ধসমূহ জমাও দিয়েছেন। প্রায় শতাধিক গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ এই ওয়েবমিনারে প্রদর্শিত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিসিমেকার ও গবেষকরা ইতোমধ্যে এই ছয়টি থিমের উপর ভিত্তি করে প্রবন্ধসমূহ জমা নিয়েছেন।

ছয়টি ওয়েব মিনারের টেকসই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন (SDG) অর্জনের বিভিন্ন কৌশল, এসডিজির বিভিন্ন দিক সম্পর্কিত তথ্য-উপাত্ত গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়কে চতুর্থ শিল্পবিপ্লব উপযোগী বিশ্ববিদ্যালয়ে কিভাবে রূপান্তর করা যায় সে সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সেখানে পাওয়া যাবে। এছাড়া এখানে থাকবে দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়ন সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। যারা রাষ্ট্র ও সমাজে বিভিন্ন পরিবর্তন নিয়ে কাজ করবে তাদের জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ভাণ্ডার হিসেবে কাজ করবে।

এছাড়াও শতবর্ষ উপলক্ষে জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে (১২ থেকে ১৪ জুলাই) লন্ডন কনফারেন্সের আয়োজন করা হবে। ইউরোপের একাডেমিক ফ্যাকাল্টিস, গবেষক, সমাজকর্মী, আইনজীবী, রাষ্ট্রীয় প্রতিনিধি, এনজিও প্রতিনিধি, তারা এখানে অংশগ্রহণ করবে। কনফারেন্সে সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে থাকবেন এ্যাসোসিয়েশন অব কমনওয়েলথ ইউনিভার্সিটিস্।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত