ঢাকা, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ৪ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১১ মে ২০২১, ১২:২৬

প্রিন্ট

খুঁটি/মাচা ছাড়াই শিম চাষ

বশেমুরকৃবিতে ‘বামন শিম’র দুই জাত উদ্ভাবন

বশেমুরকৃবিতে ‘বামন শিম’র দুই জাত উদ্ভাবন
ছবি: প্রতিনিধি

গাজীপুর প্রতিনিধি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরকৃবি) খাটো বা বামন জাতের শিমের দুইটি জাত উদ্ভাবন করেছে। জাত দুইটি হলো বিইউ খাট শিম ৮ ও বিইউ খাট শিম ৯। এ মাসেই জাতীয় বীজ বোর্ড কর্তৃক জাত দুইটি অনুমোদন পেয়েছে বলে জানিয়েছেন জাত দুইটির গবেষক বিশ্ববিদ্যালয়ের কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের অধ্যাপক ও পরিচালক (গবেষণা) এ. কে. এম. আমিনুল ইসলাম।

জাত দুইটির উদ্ভাবক বশেমুরকৃবি’র কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের অধ্যাপক ও পরিচালক (গবেষণা) এ. কে. এম. আমিনুল ইসলাম বলেন, প্রায় ৮ বছর গবেষণা করে খাট জাতের সাথে দেশিয় জাতের সংকরায়ন পরবর্তী পিউর লাইন নির্বাচনের মাধ্যমে এ জাতগুলো উদ্ভাবন করেছেন।

ইতিপূর্বে দেশি শিমের বিভিন্ন গুণগত বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন ছয়টি জাত উদ্ভাবন করেছেন। তার এবারের উদ্ভাবিত বিইউ খাটো শিম ৮ ও বিইউ খাটো শিম ৯ জাত দুইটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো এদের কোন প্রকার সাপোর্ট খুঁটি/মাচা ছাড়াও মাঠ ফসলের মত চাষ করা যাবে। এ ছাড়া জাত দুটি ছাদ বাগানে টবে চাষ করার উপযোগী।

বিইউ খাট শিম ৮: অধ্যাপক এ. কে. এম. আমিনুল ইসলাম জানান, একটি বিদেশী খাট জাতের সাথে দেশিয় জাতের সংকরায়ন পরবর্তী পিউর লাইন নির্বাচনের মাধ্যমে এ জাতটি উদ্ভাবন করা হয়েছে। এটি একটি আলোকসংবেদনশীল ও আগাম জাত। আগাম জাত হিসেবে আগস্ট মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাসে এর বীজ বপন শুরু করা যায়। গাছের উচ্চতা ৩৫-৪৫ সেমি, শুটির রং সবুজ, শিরাগুলো বেগুনী রংয়ের, নলডগ টাইপের, মাংসল এবং শাঁস নরম হওয়ায় খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু। প্রতিটি শিমের ওজন ১৮ থেকে ২০ গ্রাম, দৈর্ঘ্য ১৪ - ১৬ সেমি, প্রস্থ ১.৫ - ২ সেমি, শিমে ৬-৮ টি বীজ হয়, গাছ প্রতি ৭৫ - ৮০ টি শিম ধরে। জীবনকাল ১২০-১৩০ দিন। গাছ প্রতি ফলন ১২০০-১৫০০ গ্রাম। এই জাতটি সারা বাংলাদেশে চাষ উপযোগী।

বিইউ খাট শিম ৯: বিদেশি খাট জাতের সাথে দেশিয় জাতের সংকরায়ন পরবর্তী পিউর লাইন নির্বাচনের মাধ্যমে এ জাতটিও উদ্ভাবন করা হয়েছে। এটিও একটি আলোকসংবেদনশীল ও আগাম জাত। আগস্ট মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাসে এর বীজ বপন শুরু করা যায়। গাছের উচ্চতা ৪০-৫০ সেমি, শুটির রং সবুজ, শিরা গুলো বেগুনী রংয়ের, শুটি মাংসল এবং শাঁস নরম হওয়ায় খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু। প্রতিটি শিমের ওজন ৯ - ১০ গ্রাম, দৈর্ঘ্য ৮- ৯ সেমি, প্রস্থ ১.৫ - ২ সেমি, শিমে ৫-৬টি বীজ হয়, গাছ প্রতি ৭৫ - ১০০টি শিম ধরে। জীবনকাল ১২০-১৩০ দিন। গাছ প্রতি ফলন ৭০০-৯০০ গ্রাম। এই জাতটি সারা বাংলাদেশে চাষ উপযোগী।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. গিয়াসউদ্দীন মিয়া জানান, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উদ্ভাবিত শিমের এই জাতগুলো খাট হওয়ায় মাচা বা খুঁটি ছাড়াই মাঠ ফসলের মত চাষ করা যাবে বিধায় উৎপাদন খরচ কম হবে। কৃষকরা জাতগুলো চাষ করে অধিক লাভবান হবেন। শিমের জাতগুলো খাট হওয়ায় টবেও চাষ উপযোগী ফলে নগর বা ছাদ কৃষিতেও অসামান্য অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত