ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:১০

প্রিন্ট

নির্বাচনের আগে পোস্টাল পরিবর্তন আটকে গেছে

নির্বাচনের আগে পোস্টাল পরিবর্তন আটকে গেছে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভোট গণনার সুবিধার্থে ব্যালট জমা দেয়ার সময় বাড়িয়েছিল আমেরিকার বেশ কয়েকটি রাজ্য সরকার। তবে মার্কিন প্রেডিসেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কারচুপির সন্দেহ এনে এ ধরণের পরিবর্তন আটকে দেন। এদিকে বৃহস্পতিবার আদালতের পক্ষ থেকে দেয়া এক রায়ের ফলে উক্ত অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা এবং চূড়ান্ত ফলাফল নির্ধারণের জন্য আরও সময় দেওয়া হলো। খবর রয়টার্সের।

ওয়াশিটনের রাজ্যের নেতৃত্বে ১৪ টি রাজ্য আদালতে ভোট গণনার সময় বাড়নোর আবেদন করেছিল। পেনসিলভেনিয়ায় মেইল-ইন ব্যালট এর আগে নির্বাচনের দিন গণনার কথা ছিল। আদালতের এই আদেশে ব্যালটগুলি গ্রহণের জন্য তিনদিন সময় বাড়িয়েছেন। ভোটের দিন বিকেল ৮টা পর্যন্ত মেইল ইন ব্যালটের খামের মধ্যে পোস্টমার্ক থাকতে হবে। নির্বাচন বন্ধ হওয়ার তিন দিন পর প্রিলেকশন পোস্টমার্কসহ ব্যালটগুলি ৬ নভেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত গ্রহণ করা হবে।

আদালতের রায়ে আরও বলা হয়, উক্ত সময়ের মধ্যে প্রাপ্ত ব্যালটগুলিতে পোস্টমার্ক বা মেইলিংয়ের অন্যান্য প্রমাণের অভাব থাকলে বা মেলিংয়ের প্রমাণ নয়া মিললে তা অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

আদালতের রায়ে ঘোষণা করেছে যে ব্যালট ড্রপ বাক্সগুলি উক্ত অঙ্গরাজ্যের মধ্যে আইনী। রাষ্ট্রপতি আদালতে বিষয়টি বিবেচনা করার সময় রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণা দল ফেডারেল আদালতে এ মামলা দায়ের করেন এবং একটি ফেডারেল বিচারক মামলাটি স্থগিত করেছেন। আদালত রায়ও দিয়েছে যে পোল পর্যবেক্ষকদের জন্য রাজ্যের আবাসের প্রয়োজনীয়তা সাংবিধানিক। এই বিধি অনুসারে নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা কেবলমাত্র সেই কাউন্টিতেই নজর রাখবেন যেখানে তারা ভোট দেওয়ার জন্য নিবন্ধিত রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/নকি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত