ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৬ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১৩:৫০

প্রিন্ট

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় পুলিশপ্রধান ও অভিযুক্তের পদত্যাগ

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় পুলিশপ্রধান ও অভিযুক্তের পদত্যাগ
কৃষ্ণাঙ্গ যুবক হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের ব্রুকলিন সেন্টার শহরে পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক নিহত হওয়ার ঘটনায় তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ-সমাবেশ হচ্ছে। এই ঘটনায় ব্রুকলিন সেন্টার পুলিশের প্রধান টিম গ্যানোন ও অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা কিম পটার পদত্যাগ করেছেন। নিহত যুবক দান্তে রাইটের (২০) মা কেটি রাইট সংবাদ সম্মেলন করেছেন। পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার আগে তার ছেলের শেষ কথাবার্তার বিবরণ দিয়েছেন তিনি। রয়টার্স।

১১ এপ্রিল বিকেলে ব্রুকলিন সেন্টার শহরে পুলিশের গুলিতে নিহত হন দান্তে রাইট। ব্রুকলিন সেন্টার পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, ট্রাফিক আইন অমান্য করার পর দান্তে রাইটকে থামাতে গেলে বিপত্তি বাধে। তার সঙ্গে পুলিশের তর্ক হয়। একপর্যায়ে দান্তে রাইট ঘটনাস্থল ত্যাগ করতে গাড়িতে ঢুকে পড়েন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তা তার কোমরে থাকা ট্যাজারের পরিবর্তে ভুলক্রমে পিস্তল ব্যবহার করে ফেলেন। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন দান্তে রাইট।

দান্তে রাইটের মা কেটি রাইট গতকাল মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, পুলিশ থামানোর পর ছেলের সঙ্গে তার ফোনে কথা হচ্ছিল। গাড়ির বিমার তথ্য দেওয়ার জন্য পুলিশ অফিসারকে ফোনে চেয়েছিলেন কেটি রাইট। তার মধ্যে ফোনটি বন্ধ হয়ে যায়। কয়েক মিনিট পরই তিনি তার ছেলের মৃত্যুর কথা জানতে পারেন। দান্তে রাইটের মৃত্যুকে পুলিশ নিছক ‘দুর্ঘটনা’ বলছে। তবে দান্তে রাইটের মা কেটি রাইট একে ‘দুর্ঘটনা’ বলে মানতে রাজি নন।

ব্রুকলিন সেন্টার পুলিশে কিম পটার ২৬ বছর ধরে কাজ করেন। ২৬ বছরের একজন অভিজ্ঞ পুলিশ কর্মকর্তা ট্যাজারের বদলে ভুলক্রমে পিস্তল ব্যবহার করে ফেলেছেন—এমন কথা বিশ্বাসযোগ্য নয় বলে উল্লেখ করে ছেলে হত্যার উপযুক্ত বিচার দাবি করেছেন কেটি রাইট। সংবাদ সম্মেলনে রাইট পরিবার, আইনজীবী ও গত বছর মিনেসোটায় পুলিশ হাতে নিহত কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের আত্মীয়স্বজন উপস্থিত ছিলেন।

পুরো বিষয় নিয়ে একটি স্বাধীন তদন্ত দল তদন্ত করছে। নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে, দান্তে রাইটকে গুলি করা কিম পটারের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক অভিযোগ আনা হতে পারে। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস এক বিবৃতিতে বলেছেন, দান্তে রাইটের জন্য প্রার্থনা ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা যথেষ্ট নয়। যেহেতু বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে, তাই তিনি ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করছেন।

কিম পটার বলেছেন, স্বাধীন ও গ্রহণযোগ্য তদন্তে সত্য উঠে আসবে বলে তিনি আশাবাদী। দান্তে রাইট নিহত হওয়ার দুদিনের মাথায় ব্রুকলিন সেন্টার পুলিশের প্রধান টিম গ্যানোন ও অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা কিম পটার পদত্যাগ করেন।

গত সোমবার টিম গ্যানোন বলেছিলেন, কিম পটার ভুলবশত ট্যাজেরার বদলে পিস্তল ব্যবহার করেছেন। একই কথা বলেন কিম পটার। টিম গ্যানোন ও কিম পটারের পদত্যাগের সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেছেন ব্রুকলিন সেন্টারের মেয়র মাইক ইলিয়ট। তিনি বলেছেন, এই সিদ্ধান্তের পর পরিস্থিতি শান্ত হবে বলে আশা তার।

বাংলাদেশ জার্নাল/নকি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত