ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬ অাপডেট : ২৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২:১৬

প্রিন্ট

ফিনল্যান্ডের নির্বাচনে জয় পেয়েছে বামদল

ফিনল্যান্ডের নির্বাচনে জয় পেয়েছে বামদল
অনলাইন ডেস্ক

ফিনল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচনে অল্প ব্যবধানে জয় পেয়েছে বাম দল স্যোশাল ডেমোক্রেটিক পার্টি। ফলে দেশটিতে যে একটা কোয়ালিশন সরকার হবে তা অনেকটাই নিশ্চিত।

রোববার অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে স্যোশাল ডেমোক্রেটিক পার্টি মোট ভোট পেয়েছে ১৭.৭ শতাংশ। অন্যদিকে তাদের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী ডানপন্থি ফিনিস পার্টি পেয়েছে ১৭.৫ শতাংশ ভোট। প্রধানমন্ত্রী জুহা সিপিলার দল সেন্ট্রাল পার্টি পেয়েছে ১৩.৮ শতাংশ ভোট।

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর এসডিপি দলের প্রধান আনতি রিনে বলেন, ‘১৯৯৯ সালের পর এবারই আমরা প্রথমবারের মত ফিনল্যান্ডের সবচেয়ে বড় দল হিসেবে আবির্ভুত হলাম।’

এই দল বিজয়ী হওয়ার ফলে দেশটিতে গত বিশ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো কোনো বাম নেতাকে রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে দেখা যাবে।

ফিনল্যান্ডের ২শ আসনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে স্যোশাল ডেমোক্রেটিক পার্টি জয় পেয়েছে মাত্র ৪০ আসনে। প্রতিদ্বন্দ্বী ডানপন্থি ফিনিস দলের চাইতে তারা মাত্র একটি আসন বেশি পেয়েছে।

তবে নির্বাচনে কোনো দল একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় দেশটিতে এবার কোয়ালিশন সরকার গঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনে যে ফলাফল দেখা যাচ্ছে, যে কেউই হয়তো জোট গঠনের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে পারে। তবে ক্ষমতায় গেলেও ফিনিস পার্টিকে বিরোধী দলে রেখে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির পক্ষে খুব বেশি উদার নীতি গ্রহণ করা সম্ভব হবে না বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

সমাজকল্যাণ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা নীতি পুনর্গঠনে ব্যর্থ হওয়া গত মাসে সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুহা সিপিলার সরকার পদত্যাগ করে। ২০১৫ সালের নির্বাচনে সিপিলার সেন্টার পার্টি ডানপন্থীদের সঙ্গে জোট গঠন করে ক্ষমতায় এসেছিল। জনগোষ্ঠীতে বেশিসংখ্যক বয়স্ক লোক ও ব্যয়বহুল কল্যাণ রাষ্ট্রকাঠামোর দেশটির ক্ষমতায় এসেই সিপিলার সরকার ক্রমবর্ধমান জাতীয় ঋণ মোকাবিলাকে প্রধান লক্ষ্য হিসেবে নির্ধারণ করেন। এক দশকে ২৬০ কোটি ডলার বাঁচানোর লক্ষ্যে কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করেন তিনি। এর মধ্যে ছিল পেনশনসহ বিভিন্ন নাগরিক সুবিধার সংকোচন। এতে বছর হিসাবে সরকারের ঋণ গত এক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো হ্রাস পেলেও তা রাজনৈতিক বিতর্ক সৃষ্টি করে। ঠিক এই সময়েই ফিনল্যান্ডে বাড়তে শুরু করে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটদের জনপ্রিয়তা। আর এ প্রেক্ষাপটেই তৈরি হয় সিপিলার সরকারের পদত্যাগ ও সেই পথ ধরে আজকের নির্বাচনের ক্ষেত্রটি।

নির্বাচনকে সামনে রেখে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি আরও শক্তিশালী কল্যাণ রাষ্ট্রের কাঠামোর দিকে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন সেবা সংকোচন নিয়ে প্রায় এক বছর ধরেই দলটি কথা বলে যাচ্ছে। দলটির নেতা আনটি রিনে জুহা সিপিলার গৃহীত নীতিকে অন্যায্য আখ্যা দিয়ে অসাম্য মোকাবিলায় কর বৃদ্ধির প্রস্তাব করেন।

ফিনল্যান্ডে যে দলই সরকার গঠন করুক এর প্রভাব ছড়িয়ে পড়বে দেশের সীমানার বাইরেও। কারণ আগামী জুলাইয়েই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রেসিডেন্সি ফিনল্যান্ডের হাতে আসার কথা রয়েছে।

সূত্র: বিবিসি

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close