ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৩৫

প্রিন্ট

কাশ্মীরে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে ভারত: অরুন্ধতী

কাশ্মীরে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে ভারত: অরুন্ধতী
অনলাইন ডেস্ক

অধিকৃত কাশ্মীরের অবরুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সে দেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন লেখক ও মানবাধিকারকর্মী অরুন্ধতী রায়। তিনি মনে করেন, গত ৩০ বছর ধরে সেখানে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে।

মার্কিন সংবাদ মাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে নিজের এই উৎকণ্ঠার কথা জানিয়েছেন অরুন্ধতী রায়। এ নিয়ে তার প্রশ্ন, হঠাৎ করে কাশ্মীরিদের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নিয়ে সেখানে লাখ লাখ সেনা মোতায়েন কেন করা হলো? এমনকি তাদের প্রতিবাদ করার অধিকারটুকুও কেড়ে নিয়েছে ভারত সরকার।

ওই নিবন্ধে তিনি লেখেন, ‘কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনীর টহল ও ব্যারিকেডে ঘেরা রাস্তাগুলোতে এখন সুনসান নীরবতা, লাখ লাখ মানুষ অবরুদ্ধ ও অপদস্থ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে। কাঁটাতারে বন্দি এসব মানুষের ওপর ড্রোন দিয়ে নজরদারি চালানো হচ্ছে। যোগাযোগের ক্ষেত্রে পুরোপুরি অচলাবস্থার মধ্যে বাস করতে হচ্ছে তাদের। যদি তথ্যপ্রবাহের এ যুগে সরকার এত সহজে গোটা জনসংখ্যাকে বাকি দুনিয়া থেকে কয়েক দিন ধরে বিচ্ছিন্ন করে রাখতে পারে। তবে সামনের দিনগুলোতে সেখানে কি অবস্থা হবে তা ভাবনার বিষয়।’

গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেয়া ৩৭০ ধারাটি হঠাৎ করেই বাতিলের ঘোষণা দেয় মোদি সরকার। এর আগেই সেখানে লাখ লাখ সেনা মোতায়েন করা হয়। বন্দি করা হয়েছে সেখানকার রাজনৈতিক নেতা-কর্মী থেকে শুরু করে হাজার হাজার মানুষকে। জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। দু’দিন আগে ভারত সরকার সেখানে কারফিউ শিথিল করার কথা বললেও প্রকৃতপক্ষে এক সুবিশাল নিরাপত্তার ঘেরটোপে বন্দি কাশ্মীরের বাসিন্দারা। এ নিয়ে মোদি ও তার সাঙ্গ পাঙ্গদের দাবি, কাশ্মীরের বেশিরভাগ মানুষ সরকারের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করছে এবং এর ফলে উপত্রকায় উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যাবে।

এ নিয়ে অরুন্ধতী রায়ের প্রশ্ন, সরকার যেখানে নিজেই দাবি করে যে গুটিকয়েক জঙ্গি ছাড়া বেশিরভাগ মানুষ তাদের সমর্থন করে, তাহলে কেন সেখানে লাখ লাখ সেনা মোতায়েন করা হয়েছে?

কাশ্মীরে বর্তমানে ৮ লক্ষাধিক সেনা মোতায়েন করেছে ভারত সরকার যা এই উপত্যকাকে বিশ্বের সবচেয়ে সামরিকীকৃত এলাকায় পরিণত করেছে।

অরুন্ধতী রায় মনে করেন, গত ৩০ বছরে কাশ্মীরে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ যা কিছু করেছে, তা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। কাশ্মীর সংঘাতে বেসামরিক, সামরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য মিলিয়ে এ পর্যন্ত ৭০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। লাখো মানুষ গুম হয়েছে। নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে আরো লাখ লাখ মানুষকে।

এর আগে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনও কাশ্মীরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছিলেন, নিজেকে ভারতীয় বলে পরিচয় দিতে তার লজ্জা লাগে।

সোমবার ভারতের টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই অর্থনীতিবিদ বলেন, ‘বিশ্বে গণতান্ত্রিক আদর্শ অর্জনের জন্য অনেক কিছু করেছে ভারত। তবে এখন আর আমি একজন ভারতীয় হিসেবে এটি নিয়ে গর্বিত নই। কাশ্মীরের ক্ষেত্রে যা করা হয়েছে তাতে আমরা সেই খ্যাতি হারিয়ে ফেলেছি।’

অবরুদ্ধ কাশ্মীর

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত