ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:১৪

প্রিন্ট

পদত্যাগের সুযোগ পাচ্ছেন না লাম

পদত্যাগের সুযোগ পাচ্ছেন না লাম
অনলাইন ডেস্ক

রাজনৈতিক সমস্যা সৃষ্টি করে দেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক বিপর্যয় ডেকে এনেছেন বলে স্বীকার করেছেন হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম। তিনি বলেন, সুযোগ থাকলে পদত্যাগ করতাম।

একটি অডিও বার্তায় বলা হয়, গত সপ্তাহে একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে তিনি এ মন্তব্য করেছেন। বিষয়টি নিয়ে খবর প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

লাম জানান, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাড়তে থাকা উত্তেজনার এ সময়ে হংকংয়ের অস্থিরতা চীনের জাতীয় নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্বের বিষয় হয়ে যাওয়ায় এ সংকট সমাধানে তার ক্ষমতা অত্যন্ত ছোট হয়ে পড়েছে। যদি সুযোগ থাকতো প্রথমেই আন্তরিকভাবে ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগ করতাম।

লামের নাটকীয় ও কখনও কখনও বেদনামিশ্রিত মন্তব্যগুলোতে হংকংয়ের অস্থিরতা নিয়ে তদন্তরত চীনা নেতৃবৃন্দের চিন্তাভাবনা সবচেয়ে পরিষ্কারভাবে উঠে এসেছে। ১৯৮৯ সালে তিয়ানয়ানমেন স্কয়ারের প্রতিবাদের ঘটনার পর হংকংয়েই সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সঙ্কটের মুখোমুখি হয়েছে চীন।

চীনের মূলভূখণ্ডে বন্দি প্রত্যর্পণের সুযোগ রেখে প্রস্তাবিত একটি বিল বাতিলের দাবিতে জুন থেকে হংকংয়ে টানা আন্দোলন চলছে। কখনও কখনও সহিংস হয়ে ওঠছে আন্দোলন। চরম বিক্ষোভের মুখে আন্দোলনকারীদের শান্ত করতে লাম প্রথমে প্রস্তাবিত বিলকে ‘মৃত’ঘোষণা করেন। কিন্তু আন্দোলনকারীরা ওই বিল সম্পূর্ণ বাতিল করার দাবি জানিয়েছে, যা প্রত্যাখ্যান করেছে লামের সরকার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হংকংয়ের তিন সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রবল চাপের মুখে লাম ওই বিল বাতিল করতে চাইছেন, কিন্তু বেইজিংয়ের আপত্তিতে তা সম্ভব হচ্ছে না।

তবে বেইজিং বিক্ষোভ দমনের সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয়নি বলে ওই রুদ্ধদ্বার বৈঠকে জানিয়েছেন লাম। এমনকী ১ অক্টোবর জাতীয় দিবস উদযাপনের আগে সংকট সমাধানের জন্য কোনো সময়সীমা নির্ধারণ করে দেয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি। হংকংয়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো পরিকল্পনাও বেইজিংয়ের নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত