ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৩ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৩৮

প্রিন্ট

ব্রাজিলে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি মানবপাচারকারী আল-মামুন

ব্রাজিলে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি মানবপাচারকারী আল-মামুন
অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশি মানবপাচারকারী সাইফুল্লাহ আল-মামুনকে বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করেছে ব্রাজিল পুলিশ। এসময় যুক্তরাষ্ট্রে বড় ধরণের মানব পাচারের সঙ্গে যুক্ত একটি পাচারকারী দলকেও গ্রেপ্তারে সক্ষম হয় তারা। মার্কিন নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে এক যৌথ অভিযানে তাদের গ্রেপ্তার করে ব্রাজিল কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, আল-মামুন ব্রাজিলের শহর সাও পাউলোতে বাস করতেন। সেখানে তাকে লক্ষ্য করেই ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়। একইদিনে আরো তিনটি শহরেও বড় ধরণের অভিযান চালায় পুলিশ।

অভিযান পরবর্তী সময়ে ৪২টি ব্যাংক একাউন্টও বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এসব একাউন্ট দিয়ে অর্থ আদান প্রদান করতো পাচারকারী দলগুলো।

আল-মামুন শরনার্থী হিসেবে ব্রাজিলে আসেন ৬ বছর পূর্বে। দেশটির ব্রাস অঞ্চলে বাস করতেন তিনি। সেখান থেকে সাও পাউলো কাছেই ছিলো। সাও পাউলোতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনেক শরনার্থী অবস্থান করছেন। তাদেরকেই যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে পাচার করতেন আল-মামুন। এ জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি পেরু, ইকুয়েডর, কলোম্বিয়া, পানামা, কোস্টা রিকা, নিকারাগুয়া, হন্ডুরাস, গুয়াতেমালা ও মেক্সিকোর মতো দেশগুলোর মাফিয়াদের সঙ্গে আঁতাত করে যুক্তরাষ্ট্রে মানব পাচার করছেন।

ব্রাজিল পুলিশের তথ্যমতে, আল-মামুন ও তার গ্যাং আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও পাকিস্তান থেকে মানুষদের যুক্তরাষ্ট্রে পাচারের সঙ্গে যুক্ত ছিলো। প্রথমে তাদের থেকে প্রায় ১৩ হাজার মার্কিন ডলার করে নেয়া হতো। তারপর তাদেরকে প্রথমে ব্রাজিলের উত্তরাঞ্চলীয় এচর প্রদেশে পাঠিয়ে দেয়া হতো। সেখান থেকে দীর্ঘ ও ভয়াবহ এক যাত্রার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হতো। এর জন্য অভিবাসীদের পাড়ি দিতে হতো মধ্য আমেরিকার ওপর দিয়ে বিপদসংকুল নানা পরিবেশ। শেষ পর্যায়ে তারা মেক্সিকো-যুক্তরাষ্ট্রে সীমান্তে আশ্রয়প্রার্থী হয়ে পৌছাতো। আল-মামুনের পক্ষে লড়ার জন্য কোনো আইনজীবী নিয়োগ দেয়া হয়েছে কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ জার্নাল/জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত