ঢাকা, শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১৬:২৬

প্রিন্ট

কোনো রান্নার পাত্রের কেমন স্বাস্থ্যগুণ

কোনো রান্নার পাত্রের কেমন স্বাস্থ্যগুণ
জার্নাল ডেস্ক

স্বাস্থ্য ও পুষ্টির কথা চিন্তা করলে, ঘরে রান্না করে খাওয়ার কোনো বিকল্প নেই, কিন্তু এই কাজে কোন বাসন ব্যবহার করছেন, সেটাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ভুলভাবে রান্না করলে বাসন থেকে কিছু উপাদান এসে মিশে খাবারকে বিষাক্ত করে দিতে পারে।

কাটিং বোর্ড

ছুরি দিয়ে সবজি কাটতে হলে চাই কাটিং বোর্ড। পরিষ্কার রাখার সুবিধার জন্য আমরা প্লাস্টিকের বোর্ড ব্যবহার করি। কিন্তু এটি, খুব ভাল করে পরিষ্কার না করলে ই–কোলি, সালমোনেলা জাতীয় জীবাণু সবজিতে মেশে। স্বাস্থ্যবিদদের মতে, কাঠের বা রবারের কাটিং বোর্ড ব্যবহার করা ভাল, যেখানে এসব জীবাণু জন্মাতে পারে না।

অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল

অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে গরম খাবার রাখলে বা এতে জড়িয়ে রান্না করলে সে খাবার দূষিত হতে পারে। লেবু, টমেটো বা ভিনিগারের মতো টক কিছু মেশানো থাকলে তো এই আশঙ্কা আরো বেড়ে যায়। জার্নাল অফ অ্যালঝাইমার ডিজিজে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা গেছে কম বয়সে অ্যালঝাইমার ও পার্কিনসন ডিজিজ দেখা দেয়ার পিছনে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল একটি কারণ।

নন–স্টিক প্যান

কম তেলে রান্না করতে ও সহজে পরিষ্কার করতে এর জুড়ি নেই। তবে সাম্প্রতিক গবেষণা থেকে জানা গেছে নন–স্টিক প্যানের উপাদানের সঙ্গে বন্ধ্যাত্ব, পড়াশোনার দক্ষতা কমে যাওয়া ও ওজন বাড়ার একটা যোগ আছে। রান্নায় একটু বেশি তেল লাগলেও নিরাপদ স্টেইনলেস স্টিলের পাত্রে রান্না করুন। লোহার পাত্রে করতে পারলে তা স্বাস্থ্যের জন্য আরো ভাল।

স্টেইনলেস স্টিল

ভাল মানের স্টিল দেখতে ভাল, কাজেও ভাল। এই ধরনের বাসন থেকে কোনো ক্ষতিকর ধাতু খাবারে এসে মেশে না। যদিও আয়রন, ক্রোমিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ মিশলে বরং ভাল, কারণ আমাদের শরীরে এদের প্রয়োজনীয়তা আছে।

লোহার পাত্র

লোহার পাত্র দেখতে খুব একটা ভাল হয় না। তার উপর এতে রান্না করলে খাবার অনেক সময় কালো হয়ে যায় বিশেষ করে টমেটো, লেবুর রস বা ভিনিগার দিয়ে করলে। কিন্তু কড়াই থেকে লোহা খাবারে মিশে পুষ্টি বাড়িয়ে দেবে। তবে পলিসাইথিমিয়া নামে বেশি রক্ত থাকার অসুখ বা থ্যালাসেমিয়া রোগ থাকলে নিয়মিত ব্যবহারে সমস্যা হতে পারে।

প্লাস্টিক

প্লাস্টিক পাত্রে পানি ও খাবার রাখলে এমনিতেই বিপিএ নামের ক্ষতিকর রাসায়নিক তাতে মিশে যায়। আর গরম করলে তো কথাই নেই।

মেলামাইন

প্লাস্টিকের চেয়ে অনেক ভাল অবশ্যই। তবে এতে খাবার গরম করা বা রান্না না করাই ভাল। কারণ গলে না গেলেও এ থেকে সামান্য পরিমাণে বিষাক্ত পদার্থ বেরিয়ে খাবারে মিশতে পারে। মাইক্রোওয়েভ ওভেন বা ডিশ ওয়াশারের দেয়া যাবে না।

সিরামিক

আগুন–গরম খাবার যেমন খাওয়া যায়, এতে রান্না করলেও ক্ষতি নেই। মাইক্রোওভেন, ডিশ ওয়াশার বা ব্রয়লারের তাপেও ঠিক থাকে।

মাটি বা পাথরের বাসন

আগেকার দিনে মাটির হাঁড়িতে রান্না ও পানি রাখা হতো মাটির কলসে। তবে মাটির পাত্র মাইক্রোওভেন থেকে দূরে রাখবেন। পাথরের বাসন তাপমাত্রার অনেক পরিবর্তন মেনে নিতে পারে না। কাজেই এই ফ্রিজে বা মাইক্রোওভেনে দেয়া যাবে না।

আরএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত