ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৩৮

প্রিন্ট

চৌধুরী ফাহাদ এর পাঁচটি কবিতা

চৌধুরী ফাহাদ এর পাঁচটি কবিতা
জার্নাল ডেস্ক

রাত

মানচিত্রের মগ্নতা ভেঙে দিচ্ছে মাগরিবের ডাক

ঘরে ঘরে সনাতন ঘন্টি-

তারও শরীরে প্রার্থনার হাঁক,

জীব প্রেমে ঈশ্বরমুখী যে বাতি- জ্বলে ওঠছে নন্দনকানন

সেও কি পারছে রুখে দিতে অন্ধকার পতন!

রাত,

এভাবেই নামে সে- এতটা সন্তাপ

মানচিত্র জুড়ে বেহাগ;

অন্ধকার অন্ধকার মূর্ছনা গিলে খায় যত নমঃ নমস্য প্রতাপ!

নিঃসঙ্গতা

পিঁপড়ের মার্চপাস্ট ধরে-

ঢুকে পড়ি হৃদয় বহির্ভূত বেদনার গহ্বরে,

ঢুকে দেখি-

পৃথিবীর সমস্ত জীবন স্থান করে নিয়েছে ওখানে

আমার আগেই!

পথ

যদিও পাখির ঠোঁটে ফাটছে বিভাস

গাঢ় অন্ধকার নেমে আছে শহরের ফুসফুসে

যদিও রাতের গোপনাঙ্গ জুড়ে আছে শ্রান্তির হলাহল

পরিযায়ী হাওয়ার পাঠে জেগে আছে যাযাবর চিঠির টান

যদিও সমস্ত ক্রসিং থেকে মুছে গেছে মানুষের পদচিহ্ন

আমার ফেরার তাড়া নেই

পৃথিবীর সব অহংকারী লাইন নিয়ে, দেখো

দাঁড়িয়ে আছে পথ

যেন-

আমি ছুঁয়ে দিলে এক ছুটে পৌঁছে যাবে অমরত্বের ঠিকানায়...

বিরহপোড়া

বলতে পারো বিরহপোড়া-

মানুষ কেন জন্মের মত সুন্দর হয়?

কেন উজ্জ্বল হয় শেষ নক্ষত্রের মত?

তোমাকে দেখেই নিপুণ জেনেছি ঈশ্বর!

তোমাকে দেখেই এঁকেছি অপার্থিব স্বর!

বলতে পারো বিরহপোড়া-

সুন্দরের সুন্দর দেখলে কেন বিষণ্ণ লাগে?

কেন ঘোর তন্দ্রার ভেতরেও একা লাগে?

তোমাকে দেখেই জেনেছি দীর্ঘশ্বাসের অন্য নাম মুগ্ধতা!

তোমাকে দেখেই মেনেছি মুগ্ধতার আরেক নাম মানুষ!

বলতে পারো বিরহপোড়া-

তোমাকে ভাবলেই কেন একা লাগে! বিষণ্ণতা জাগে?

তবে কি তুমিই আমার স্নায়ুর রঙ- অদ্বিতীয় বিষাদ!

বিস্মরণ

পরিচিত সন্ধ্যার আয়নায় বুকে আগুন নিয়ে সেই ল্যাম্পপোস্ট

দাঁড়িয়ে থাকবে না বলে একদিন পথ আর হাঁটবে না পথে!

একদিন সারারাত ধরে আঁধার, সারারাত ধরে নীরবতা

কথা বলে যাবে বয়োবৃদ্ধ ফুটপাথে।

ছয়টার লোকাল বাসে আর ফিরবে না কোন বন্ধু...

একদিন বন্ধ হয়ে যাবে শিল্পকলা রোড, বিভূঁই চত্বর,

সাত্তার মামার দোকানে চা'য়ের অর্ডার নিয়ে আসবে নতুন অতিথি,

সারারাত ধরে খাপছাড়া আড্ডার বেঞ্চিতে জন্মাবে হলুদ ঘাস।

একদিন তুমুল সম্পর্কহীনতার অভিশাপে আগুন নিভে গেলে

স্তম্ভ নিয়ে ভেঙে পড়বে এক পরিচিত ল্যাম্পপোস্ট।

উইন্ডচাইমে হাওয়া লাগলে সমস্ত স্মৃতি নিয়ে শেষ জন ফিরে ফিরে খুঁজবে নামফলক

সব বন্ধু মরে গেলে একদিন প্রবর্তকের দিকে হাঁটতে হাঁটতে একা

স্মরণ চাপে একজন আত্মহত্যায়খুঁজে নেবে জীবনের মুক্তি!

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত