ঢাকা, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ২২ মিনিট আগে

ঢাবি ক্লাবে রিজভী: তথ্যানুসন্ধান কমিটি

  ঢাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২২ জুন ২০২২, ১৭:১২

ঢাবি ক্লাবে রিজভী: তথ্যানুসন্ধান কমিটি
ঢাবি প্রতিনিধি

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাব ভবনে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আওয়ামী লীগপন্থী কিছু শিক্ষক ও ছাত্রলীগ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবের সভাপতি ও বিএনপিপন্থী শিক্ষকনেতা এ বি এম ওবায়দুল ইসলামের আমন্ত্রণে রিজভী ক্লাবে গিয়েছিলেন। এমন পরিস্থিতিতে ‘প্রকৃত ঘটনা’জানতে ক্লাবের পক্ষ থেকে একটি তথ্যানুসন্ধান (ফ্যাক্টস ফাইন্ডিং) কমিটি করা হয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাত একটা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবে অবস্থান করেন রুহুল কবির রিজভী। এ সময় রিজভীর সঙ্গে তার স্ত্রীসহ কয়েকজন ছিলেন।

পরদিন রোববার ছাত্রলীগের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে ক্লাবের সিসিটিভি ফুটেজে রিজভীর প্রবেশের ছবি দিয়ে একে ‘গোপন বৈঠক’আখ্যা দেয়া হয়।

ওই পোস্টে প্রশ্ন তোলা হয়, ক্লাবে মধ্যরাতের বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র চলছিল? বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সঙ্গে আর কারা ছিলেন?

আওয়ামীপন্থী নীল দলের শিক্ষকদেরও কেউ কেউ একই ধরনের প্রশ্ন তোলেন। পরে গত সোমবার রাতেই ক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের সভা ডাকা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামীপন্থী শিক্ষকনেতা আবদুর রহিম বলেন, সোমবার রাতে ক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের সভা হয়। যেহেতু রোববারের ওই ঘটনা নিয়ে একধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তাই সেদিনের প্রকৃত ঘটনা জানতে একটি তথ্যানুসন্ধান কমিটি করা হয়েছে। কমিটি এ বি এম ওবায়দুল ইসলামের কাছে ওই ঘটনার বিষয়ে লিখিত ব্যাখ্যা চাইবে। ক্লাবের নেতা ও ফার্মেসি অনুষদের ডিন সীতেশ চন্দ্র বাছাড়কে প্রধান করে গঠিত ওই কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এদিকে বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কি সেনানিবাস? তা তো নয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। সেখানে আমাদের বন্ধুবান্ধব থাকতে পারে। তাদের দাওয়াতে যদি আমরা সেখানে যাই, এখানে ষড়যন্ত্রতত্ত্ব কী করে দাঁড় করানো হলো?

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত