ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০১৯, ০০:১৫

প্রিন্ট

মেসির কথা শুনে সেদিন কেঁদেছিল দলের সবাই

মেসির কথা শুনে সেদিন কেঁদেছিল দলের সবাই
অনলাইন ডেস্ক

জাতীয় দলের হয়ে বরাবরই ব্যর্থ রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা লিওনেল মেসি। সবশেষ কোপা আমেরিকাতেও ব্যর্থ হয় আলবিসেলেস্তেরা। ফলে দেশের জার্সিতে প্রাপ্তির খাতাটা ফাঁকাই রয়ে গেছে সময়ের অন্যতম সেরা এলএমটেন’র।

গত জুলাইতে কোপার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হারে আর্জেন্টাইনরা। তবে দল হারলেও মেসির নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন তার জাতীয় দলের সতীর্থ ও পিএসজি উইঙ্গার অ্যাঙ্গেল দি মারিয়া।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায়ের পর ড্রেসিং রুমে যা হয়েছিল তা নিয়ে তিনি বলেন, মেসি খুব সুন্দর কিছু কথা বলেছিল। মেসি বলেছিল যে, আমরা যে দল গড়েছি তা নিয়ে সে গর্বিত।

ইএসপিএনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডি মারিয়া বলেন, মেসি বলেছিল যে, আমরা বেশি দিন ধরে একসঙ্গে নেই কারণ কয়েকজন (মূল দলে) আগে ডাক পায়নি। তারপরও যেন মনে হচ্ছে, আমরা সবাই অনেক বছর ধরে একসঙ্গে রয়েছি। সে বলেছিল যে, প্রথম দিন থেকে আমরা সবাই একই লক্ষ্যের দিকে চলেছি। তরুণ খেলোয়াড়রা এই জার্সির প্রতি যে নিবেদন দেখিয়েছে তাতে তাদেরকে নিয়ে সে খুবই গর্বিত এবং তারা যোগ্যতার মাপকাঠি অতিক্রম করেই সেখানে (জাতীয় দলে) জায়গা করে নিয়েছিল এবং কোপা আমেরিকায় নিজেদের নিংড়ে দিয়েছিল।

তিনি বলেন, যখন মেসি কথা বলা শেষ করেছিল, সবার চোখ ছিল অশ্রুসিক্ত, বিশেষ করে তরুণ খেলোয়াড়দের কারণ তার কথাগুলো সবার মন ছুঁয়ে গিয়েছিল।

দি মারিয়া বলেন, তাকে ঘিরে অনেক সমালোচনা ছিল, যেমন- সে জাতীয় সঙ্গীত গায় না, সে কথা বলে না। তবে এই কোপা আমেরিকা ছিল ভিন্ন। সে তা প্রমাণ করেছে। আমাকে যা সবচেয়ে খুশি করেছে তা হলো যেভাবে সে দলের সামনে কথা বলেছিল, যেভাবে সে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছিল। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো লিও এমনই। আর আমি এই মেসিকেই পছন্দ করি।

১৯৯৩ সালে শেষবার কোনো আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতেছিল আর্জেন্টিনা। এরপর গত ২৬ বছরে শিরোপা খরা কাটাতে পারেনি আলবিসেলেস্তেরা। ক্লাব পর্যায়ে বার্সেলোনার হয়ে সব শিরোপা জিতলেও জাতীয় দলের জার্সিতে প্রাপ্তির খাতাটা ফাঁকাই রয়ে গেছে মেসির। ক্লাবে তুখোড় হলেও আর্জেন্টিনাকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফুটবলার- এই অভিযোগ বরাবরই রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত