ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ অাপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ১৭:২১

প্রিন্ট

কেউ প্রভাব খাটালে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেবেন: কমিশনার রফিকুল

কেউ প্রভাব খাটালে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেবেন: কমিশনার রফিকুল
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম নির্বাচন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেছেন, ভোটগ্রহণের সময় যদি কেউ প্রভাব বিস্তার করে, তবে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেবেন। আপনাদের সব ধরনের প্রোটেকশন দেয়া হবে। পঞ্চম ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কোনো প্রকার অনিয়ম সহ্য করা হবে না বলেও এসময় তিনি হুঁশিয়ার করেন।

বুধবার নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা পরিষদ হল রুমে পঞ্চম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রফিকুল ইসলাম বলেন, পত্রিকার পাতায় দেখি, নির্বাচন কমিশনকে শতশত গালি দেয়া হচ্ছে। কেউ বলছে, নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছি; আবার কেউ বলছে, চমৎকার নির্বাচন হয়েছে, দেশটাকে রক্ষা করেছি। আমি জানি না কোনটা সঠিক। যে অনিয়মের কথা বলা হয়, তার জন্য কমিশন যতটা দায়ী, তার চেয়ে বেশি দায়ী ভোটগ্রহণ কর্মকর্তারা। কিন্তু গালি খায় নির্বাচন কমিশন।

এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ব্যালট বা ইভিএম মেশিন কার কাছে থাকে? প্রিজাইডিং অফিসারের কাছে থাকে। আপনারা ভোটগ্রহণ করে তা গুনে ফল প্রকাশ করেন। আপনারা যাদের বিজয়ী ঘোষণা করেন, নির্বাচন কমিশন তাদের নামে গেজেট প্রকাশ করে। গেজেট প্রকাশ ছাড়া কমিশনের কোনও কিছু করার অধিকার নেই। কিন্তু তারপরও আমাদের গালি দেওয়া হয়।

রফিকুল ইসলাম বলেন, আগে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সরকারি প্রেসে ছাপিয়ে ব্যাটল পেপার কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হত। পরে প্রিজাইডিং অফিসার ব্যালট পেপার নিয়ে সারারাত জেগে থেকে সকালে ভোটগ্রহণ শুরু করতেন। এসব ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে ভোটগ্রহণ ও গণনা সহজ হয়। ইভিএম নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে। তবে ইভিএম অনেক আধুনিক।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও বন্দর উপজেলা নির্বাচনের রিটানিং কর্মকর্তা মাছুম বিল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন—আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরে আলমসহ অনেকে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close