ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১৭:০৬

প্রিন্ট

পালিয়ে আসার দুই বছর পূর্তি

শর্ত না মানলে কিছুতেই ফিরবে না রোহিঙ্গারা

শর্ত না মানলে কিছুতেই ফিরবে না রোহিঙ্গারা
কক্সবাজার প্রতিনিধি

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নৃশংস নির্যাতনের মুখে রোহিঙ্গাদের সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার দুই বছর পূর্ণ হয়েছে আজ। এ উপলক্ষে রোববার সকালে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতপালং রোহিঙ্গা শিবিরের বি ব্লকের শিবির-৪ এর বর্ধিত মাঠে হাজারো রোহিঙ্গা জড়ো হয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশ থেকে মিয়ানমারে সংগঠিত গণহত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন রোহিঙ্গা নেতারা। এসময় তারা কিছু শর্ত জুড়ে দেন। যেগুলো মেনে নিলেই তারা নিজ দেশ মিয়ানমারে ফিরে যাবে, নতুবা কিছুতেই ফিরবে না।

এসময় মিয়ানমারে তাদের বিরুদ্ধে পরিচালিত গণহত্যার বিচার নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে উদ্যোগ নেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়।

আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস এর চেয়ারম্যান মুহিব উল্লাহ তার বক্তব্যে বলেন, ‘প্রত্যাবাসনের আগে নাগরিকত্বের নিশ্চয়তা, সুরক্ষিত রাখাইন রাজ্য, চলাফেরার স্বাধীনতা, জাতিসত্তার স্বীকৃতি এবং আশ্রয় কেন্দ্রে নয়, নিজেদের ভিটেমাটিতে ফিরে যেতে দেওয়ার নিশ্চয়তা দিতে হবে। তবেই আমরা নিজ দেশ মিয়ানমারে ফিরবো।’

সকাল ৯টার পর থেকে পাহাড়ের পাদদেশে মাঠে জড়ো হতে শুরু করে রোহিঙ্গারা। এক পর্যায়ে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গার উপস্থিতিতে মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। সেখানে স্থাপিত মঞ্চে আরো বক্তব্য রাখেন মাষ্টার আবদুর রহিম, মৌলভী ছৈয়দ উল্লাহ ও রোহিঙ্গা নারী নেত্রী হামিদা বেগম সহ অনেকেই।

এই সমাবেশে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হাতে যারা নিহত ও নির্যাতিত হয়েছেন তাদের জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনী নৃশংস অভিযান চালানোর পর নতুন করে ৭ লাখ ৪৩ হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। বর্তমানে বাংলাদেশের বিভিন্ন আশ্রয় শিবিরে প্রায় ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা অবস্থান করছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত