ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৫০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ০৯:০৯

প্রিন্ট

কলকাতায় বেড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে আহত ৬ বাংলাদেশি

কলকাতায় বেড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে আহত ৬ বাংলাদেশি
প্রতীকী ছবি
কলকাতা প্রতিনিধি

কলকাতায় বেড়াতে এসে শুক্রবার বিকালে বজ্রপাতে আহত হয়েছেন একাধিক বাংলাদেশি পরিবার। সবমিলিয়ে মোট ১৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়। যাদের মধ্যে ছয়জনই বাংলাদেশি। আহতদের কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় বেড়াতে এসেছিলেন বাংলাদেশের নারায়নগঞ্জ, যশোর ও খুলনা জেলার বেশ কয়েকজন বাসিন্দা। এদিন বিকালে তারা কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল পরিদর্শনে আসেন। সেই সময় ঘন কালো মেঘে ছেয়ে যায় গোটা কলকাতার আকাশ। সামান্য সময়ের মধ্যেই তুমুল বৃষ্টি নামে। সেই সাথে শুরু হয় প্রবল বজ্রপাত। প্রবল বজ্রপাত ও বৃষ্টির হাত থেকে বাঁচতে ভিক্টোরিয়ার দক্ষিণ গেটে আশ্রয় নেয় ওই বাংলাদেশি নাগরিকরাসহ আরও অনেকে। এরপর বিকাল সাড়ে তিনটা নাগাদ আচমকা সেখানে বাজ পড়ে। সেই বজ্রাঘাতে কমবেশি আহত হন ১৭ জন। যাদের মধ্যে অনেক বাংলাদেশি নাগরিকরাও রয়েছেন।

এই সময় ভিক্টোরিয়ার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিআইএসএফ তাদেরকে উদ্ধার করে এবং সেখানে থেকে আহতদের কলকাতার এসএসকেএম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালে আসার পথেই মৃত্যু হয় কলকাতার এক নাগরিকের। মৃত ব্যক্তি কলকাতা সংলগ্ন দমদমের বাসিন্দা, নাম সুবীর পাল (৩৪)।

এছাড়া আহতদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদের পাশাপাশি বাংলাদেশের ছয়জন নাগরিক রয়েছেন। বাংলাদেশি নাগরিকরা হলেন নারায়নগঞ্জের বাসিন্দা কাজী জহিরুদ্দিন মিঠুর দুই পুত্র সন্তান কাজী রিয়াজুদ্দিন মহিন (৮) ও কাজী মিরাজুদ্দিন আরবী (৬)। যশোরের বাসিন্দা কাকলি রানি (৪৫), অবন্তী বিশ্বাস (৮) ও বৃত্তি বিশ্বাস (১৬)। এছাড়াও রয়েছেন খুলনার বাসিন্দা জয়ন্তী রানি সরকার (৫৩)।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তারা অনেকটাই বিপদমুক্ত বলে জানা গিয়েছে। তবে এ ঘটনায় আতঙ্কিত তাদের সবাই। তারা এখন সুস্থ হয়ে দ্রুত বাংলাদেশ ফিরে যেতে চাইছেন।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত