ঢাকা, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৮ মার্চ ২০২১, ১৬:২১

প্রিন্ট

কুড়ি বছর আগের প্রেমের গল্পে মুন

কুড়ি বছর আগের প্রেমের গল্পে মুন

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রায় কুড়ি বছর আগে অর্থাৎ বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে এতটাও আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি শহরে। সেসময়ে হাতে হাতে মুঠোফোন ছিলো না। তরুণ-তরুণীর প্রেম তখন গড়ে উঠতো চিঠি আদান-প্রদানের মাধ্যমে। এর বাইরে পিসিওর মাধ্যমেও জমে উঠতো অনেকের প্রেমের আলাপন। আধুনিক যুগের চলতি সময়ে কুড়ি বছর পেছনের গল্পে সম্প্রতি নির্মিত হয়েছে ওয়েব ফিল্ম ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’। ৯০ মিনিট ব্যাপ্তি এ ফিল্মে দেখা যাবে তিনটি অসম প্রেমের গল্প। এটি পরিচালনা করেছেন রুবেল আনুশ।

শেষ অসম প্রেমের গল্পে অভিনয় করেছেন মডেল ও অভিনেত্রী মুন, যিনি এর আগে ‘জানোয়ার’ এ অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। তিনি বলেন, একটা সুন্দর প্রেমের গল্পে কাজ করেছি। ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ নাম হলেও এখানে নিষিদ্ধ কিছুই নেই। একটা মফস্বল শহরের তিন জোড়া তরুণ-তরুণীর প্রেমের গল্প দেখান হয়েছে। যার মধ্যে একটিতে আমি অভিনয় করেছি। দর্শকরা সেই পুরনো সময়ের একটা অনুভূতি খুঁজে পাবেন, অনেকে হয়তো নিজেদের সাথেও রিলেট করতে পারবেন। কাজটি করে বেশ ভালো লেগেছে আমার।

ওয়েব ফিল্মটি ওটিটি প্লাটফর্ম সিনেমাটিক অ্যাপে মুক্তি পাবে আসছে ঈদে। এখানে মুন ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন সালমান, একে আজাদ সেতু প্রমুখ।

‘স্বাদ ও ভালোবাসার হ্যাপি নিউ ইয়ার উইশ’ স্লোগানে নির্মিত মিস্টার নুডলসের বিজ্ঞাপন দিয়ে দুই বছর আগে পরিচিত পেয়েছিলেন মুনমুন আহমেদ। তার আগের বছর প্যারাসুটের বিজ্ঞাপন দিয়ে শোবিজে যাত্রা শুরু করলেও তিনি একটু একটু করে পরিচিতি পেতে থাকেন মিস্টার নুডলসের বিজ্ঞাপন দিয়ে। এরপর ‘ডাবর হানি টি’ ও ‘নেসলে বাংলাদেশ’ এর বিজ্ঞাপনেও হন প্রশংসিত। বিজ্ঞাপনে নিজেকে নিয়মিত করলেও পর্দায় আলো ছড়াতে শুরু করেন দীপ্ত টেলিভিশনের দীর্ঘ ধারবাহিক ‘মান অভিমান’ এর লিলি চরিত্রে। কিছুদিন আগে ডিজিটাল হাসপাতালের একটি বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হয়েছিলেন।

ঢাকাতেই বেড়ে উঠা মুনমুন রাজধানীর একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে বিবিএ’তে পড়ছেন। ২০১৭ সালে স্নাতক বিষয়ে পড়ার জন্য পাড়ি জমিয়েছিলেন সুদূর মালয়েশিয়াতে। কিন্তু পথিমধ্যেই পরিবারের টানে দেশে ফিরে আসেন। এরপর ২০১৮ সালের দিকে শোবিজে পা রাখেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত