ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ৪ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৪:১৬

প্রিন্ট

বিগ বস থেকে সরে যাচ্ছেন সালমান খান

বিগ বস থেকে সরে যাচ্ছেন সালমান খান

বিনোদন ডেস্ক

অনেক দিন ধরেই কানাঘুঁষা চলছে বিগ বস থেকে সরে দাড়াচ্ছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। সর্বশেষ এপিসোডে সালমান না থাকায় সেই জল্পনা যেন আরও জোরাল হল। শোনা যাচ্ছে এবার বিগ বস ১৩-তে সঞ্চালকের ভূমিকায় আর দেখা যাবে না ভাইজানকে। তার পরিবর্তে আসতে পারেন বলিউড নির্মাতা ফারাহ খান।

যদিও এই নিয়ে সরাসরি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ এখনও কিছু জানায়নি। শুধু তাই নয়, এই বিষয়ে এখনও মুখ খুলেন নি সালমান বা ফারাহ কেউই।

ইন্ডাস্ট্রি সূত্রে খবর, সালমানের সিনেমা নিয়ে ব্যস্ততার কারণেই বিগ বস ১৩ ছাড়তে চাইছেন তিনি। দাবাং ৩-এর পরই পাইপলাইনে রয়েছে রাধে সিনেমা। সে কারণেই নাকি বিগ বস-এর দায়িত্ব ঝেড়ে ফেলতে চান ভাইজান।

বিগ বস ১৩-র খেলা জমে উঠেছে। ঘরে ঘরে বিগ বসের ঘরের নানা প্রতিযোগীকে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় মেতে রয়েছেন ফ্যানেরা। এরই মধ্যে সালমান খানের প্রতি এপিসোডের আয় আরও বাড়ল।

সূত্রের খবর, প্রতি এপিসোডের জন্য বাড়তি ২ কোটি টাকা করে পাবেন ভাইজান। প্রায় ৫ সপ্তাহ হয়ে গিয়েছে এবারের বিগ বস ১৩-র বয়স। কিন্তু কালার্স চ্যানেল কর্তৃপক্ষ কোনও ভাবেই সালমানকে ছাড়তে রাজি নন। সে কারণেই প্রতি এপিসোডে তাঁর ফি আরও ২ কোটি করে বাড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন তাঁরা।

এতদিন শোনা গিয়েছিল প্রতি এপিসোডের জন্য সলমান পান ৮ কোটি টাকা। এবার ২ কোটি বাড়ায় তাঁর রোজগার হয়ে যাচ্ছে ১০ কোটি। এরই সঙ্গে জানা গিয়েছে, বিগ বস-এর অন্য ভাষার শোগুলির সমস্ত সঞ্চালকের থেকে সবচেয়ে বেশি টাকা পান সলমান।

২৯ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছে বিগ বস ১৩। এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই নানারকম অভিযোগ উঠছে সালমান খানের এই শোয়ের বিরুদ্ধে। অভিযোগের তীব্রতা এতটাই যে দ্য কনফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি) এই অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছে।

অভিযোগ জানিয়ে লেখা হয়েছে, এই শো ঘিরে অশ্লীলতা এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে তা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বসে দেখা যাচ্ছে না। ভারতীয় ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতিতেও তা তীব্র প্রভাব পড়ছে। আমাদের মতো দেশে এই ঘটনা কখনই অনুমোদন যোগ্য নয়। ওই চিঠিতে আরও লেখা হয়েছে, টিআরপির লোভে নির্মাতার সবই ভুলতে বসেছেন। আমাদের মতো দেশে যে কোনও বাড়িতেই ছোট থেকে বড় সকলে একসঙ্গে বসে টিভি দেখেন। 'বেড ফ্রেন্ড ফরএভার' বলে তাঁরা যে পর্বের সম্প্রচার করছেন তা অত্যন্ত শোচনীয়। এখান থেকে ভারতীয় সমাজের প্রতি খুব ভুল বার্তা যাচ্ছে। সে কারণে সলমানের বাংলোর বাইরে নিরাপত্তা বাড়িয়েছিল মুম্বাই পুলিশ।

বাংলাদেশ জার্নাল/ আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত