ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ অাপডেট : ১১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ মে ২০১৯, ১৩:৪২

প্রিন্ট

ভারতে ভোটের তাণ্ডবে ভাঙলো বিদ্যাসাগরের মূর্তি

ভারতে ভোটের তাণ্ডবে ভাঙলো বিদ্যাসাগরের মূর্তি
অনলাইন ডেস্ক

ভারতে ভোটের তাণ্ডবে দ্বিশতবর্ষে ভাঙা হল ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের রোড শো থেকেই তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠল বিদ্যাসাগর কলেজে। শুধু দরজা, জিনিসপত্র ভাঙচুর নয়, অফিসঘরে বসানো বিদ্যাসাগর-মূর্তিও বিজেপি-সমর্থকেরা আছাড় মেরে ভেঙে দেন বলে অভিযোগ।

বিজেপির পাল্টা অভিযোগ, শাহের রোড শোয়ে ইট ছুড়ে আক্রমণ চালিয়ে প্রথমে গোলমাল বাধিয়েছে তৃণমূলই। এমনকি রোড শো শুরুর আগেই পোস্টার-ফেস্টুন খুলে দিয়ে প্ররোচনা সৃষ্টির চেষ্টা চালিয়েছিল শাসক দল।

মহামনীষীর মূর্তি ভাঙার নিন্দায় সরব হয়েছে বিভিন্ন মহল। উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের দিয়ে পুরো ঘটনার তদন্ত হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুলিশ কমিশনার রাজেশ কুমার রাতে জানান, তদন্ত শুরু হয়ে গিয়েছে।

মঙ্গলবার রাতেই মুখ্যমন্ত্রী ঘটনাস্থলে যান। যান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং পুলিশ কমিশনার। প্রশাসনের খবর, নির্বাচনী প্রচারের ফাঁকে মূর্তি ভাঙার খবর পান মমতা। তিনি অপরাধীদের ধরতে কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে ফোন করে কঠোর নির্দেশ দেন। পুলিশ রাতে জানায়, ১৬ জন হাঙ্গামাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা হয়েছে। আগুন জ্বালানো হয়েছে। কোনও রাজনৈতিক দলের এ-রকম হাঙ্গামা কখনও দেখিনি। বিহার-রাজস্থান থেকে গুন্ডা এনে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। নিন্দার ভাষা নেই। আমি লজ্জিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী। বাংলার মানুষ হয়ে আমরা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে সম্মান দিতে পারি না বিজেপির গুন্ডাদের জন্য।

মুখ্যমন্ত্রী কলেজে ঢুকে বিদ্যাসাগরের মূর্তির ভাঙা অংশগুলি কুড়িয়ে একটি বাক্সে রাখেন। পরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসেও যান তিনি।

মঙ্গলবার অমিত শাহর রোড শো’কে কেন্দ্র করে কলকাতায় দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছিল। শুরুটা হয়েছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। যার আঁচ এসে পড়ল বিদ্যাসাগর কলেজে।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট বন্ধ করে দেওয়ায় সে যাত্রায় কলেজের ভিতর ঢুকতে পারেনি বিজেপি সমর্থকরা। কিন্তু এরপর মিছিল আরও এগিয়ে যায়। আর এরপরই বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙচুর চালাতে শুরু করে বিজেপি কর্মীরা। ইট, বাঁশ নিয়ে কলেজ চত্বরে ঢুকে পড়ে বিজেপির সমর্থকরা। ভেঙে ফেলা হয় বাইরের গেট, রিসেপশনের কাঁচের দরজা, সেখানে রাখা চেয়ার–টেবিল। এখানেই শেষ নয়, দীর্ঘদিন ধরে কলেজ চত্বরে রাখা বিদ্যাসাগরের মূর্তিও ভেঙে ফেলেন বিজেপির উন্মত্ত সমর্থকরা।

এছাড়া গেটের বাইরে থেকে লাগাতার ইট, পাটকেল ছোড়া হতে থাকে কলেজের ভিতরে। এরপর গেটের বাইরে রাখা বাইকগুলিও জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। সন্ধ্যে ৬ টা ৫০ থেকে ৭ টা ১০ পর্যন্ত চলে এই ভাঙচুরের ঘটনা। সেসময় কলেজের ভিতরে অনেক ছাত্র–ছাত্রীরাও ছিলেন। তারাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

এদিকে মূর্তি ভাঙার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে বিজেপি। দলের সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে বিজেপির ওপর দোষ চাপাচ্ছে।

সূত্র: আনন্দবাজার/ আজকাল

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close