ঢাকা, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২১ আগস্ট ২০২০, ১৯:১৮

প্রিন্ট

সাক্ষাতকারে মান্না

ঐক্যফ্রন্ট নামে আছে, কাজে নেই

ঐক্যফ্রন্ট নামে আছে, কাজে নেই
কিরণ শেখ

মাহমুদুর রহমান মান্না। বর্তমানে তিনি নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক। ১৯৭২ সালে চাকসুর জিএস নির্বাচিত হন। ১৯৭৩ সালে জাসদ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং ১৯৭৬ সালে জাসদ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি হন। ১৯৭৯ সালে ডাকসুর ভিপি নির্বাচিত হন। ১৯৮০ সালে তিনি বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ গঠনের অন্যতম উদ্যোক্তা। ১৯৮৩ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে তিনি সক্রিয় হয়ে পড়েন। পরে ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৯ সালে বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের পদ থেকে বাদ পড়েন মান্না।

বর্তমানে তিনি নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম সারির নেতা হিসেবে সক্রিয়। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, ঐক্যফ্রন্টের কার্যক্রম, মেজর (অব.) সিনহা হত্যা এবং করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকারের ব্যবস্থাসহ নানা বিষয়ে বাংলাদেশ জার্নালের সঙ্গে কথা হয় মাহমুদুর রহমান মান্নার। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন কিরণ শেখ

বাংলাদেশ জার্নাল: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

মাহমুদুর রহমান মান্না: বিগত নির্বাচনের পরে এসব বিষয় নিয়ে এখন পর্যন্ত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বসে আলোচনা করেনি।

বাংলাদেশ জার্নাল: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মনে করেন যে, নির্বাচনের আগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জোট করা ভুল ছিল, এবিষয়ে আপনার মতামত কী?

মাহমুদুর রহমান মান্না: বেগম জিয়া যে এই কথা বলেছেন, তার কোন প্রমাণ নেই। আমি তো শুনি নাই। এছাড়া তাদের মহাসচিব বলেছেন, এধরণের কথা (বিএনপি চেয়ারপারসন) বলেননি।

বাংলাদেশ জার্নাল: কেউ যদি বলেন ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জোট করা ভুল ছিল, আপনার মন্তব্য কী হবে?

মাহমুদুর রহমান মান্না: ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্ট হয়নি। এখানে একটা যৌথ নেতৃত্ব ছিল। আর এটা বহুবার বলা হয়েছে। আর ড. কামাল হোসেন যেহেতু সিনিয়র (ফাদার ফিগার মতো) ছিলেন, সেটুকু সম্মান তাকে আমরা দিয়েছি। কিন্তু উনার নেতৃত্বে জোট হয়েছে, সমস্ত দায়িত্ব উনার এবং সমস্ত দোষ উনার- এরকম কোন ব্যাপার না।

বাংলাদেশ জার্নাল: শোনা যাচ্ছে, ড. কামাল হোসেন ঐক্যফ্রন্টের প্রধান থাকছেন না?

মাহমুদুর রহমান মান্না: উনি তো প্রধান নন। তাই উনার থাকা আর না থাকার কথা আসবে কেনো? তবে পত্রিকায় উনাকে প্রধান লেখা হয়েছে। কিন্তু উনি প্রধান নন। তবে উনি সিনিয়র হিসেবে, সংবিধানের প্রণেতা হিসেবে সম্মান পেতেন এবং এখনো পান। কিন্তু উনি জোটের প্রধান ছিলেন না।

বাংলাদেশ জার্নাল: অনেকেই বলেন, ঐক্যফ্রন্ট এখন শুধুই নামেই আছে, কাজে নেই- এবিষয়ে আপনার মন্তব্য কী?

মাহমুদুর রহমান মান্না: ঐক্যফ্রন্ট তো কাজে নাই। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখের পরে ঐক্যফ্রন্ট আজ পর্যন্ত বসতেও পারেনি।

বাংলাদেশ জার্নাল: তাহলে কী ঐক্যফ্রন্ট থাকছে না?

মাহমুদুর রহমান মান্না: ঐক্যফ্রন্ট আছে। কিন্তু কাজে নেই।

বাংলাদেশ জার্নাল: মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার বিষয়টি আপনি কিভাবে দেখছেন?

মাহমুদুর রহমান মান্না: এটা একটা হত্যাকাণ্ড।

বাংলাদেশ জার্নাল: করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকার যেসব ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে, সেগুলোকে আপনি কী যথেষ্ট বলে মনে করেন?

মাহমুদুর রহমান মান্না: সরকার কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বলে আমি তো দেখি না। কিন্তু আপনি বলতে পারেন যে, হাসপাতালগুলোতে করেছে। হ্যাঁ করেছে। কিন্তু এটা এতোটাই অপ্রতুল যে, এগুলো নিয়ে স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতিবাজদের চেহারা উন্মোচিত হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল: করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে নাগরিক ঐক্য কী পদক্ষেপ নিয়েছে?

মাহমুদুর রহমান মান্না: আমরা ৪ জন ডাক্তার নিয়ে একটি মেডিকেল টিম করেছি। তাদের দু’জন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে এখন তারা ভালো আছেন। এছাড়া আমরা হ্যান্ড স্যানেটাইজার নিজেরাই তৈরী করে বিতরণ করেছি, মাস্ক দিয়েছি এবং ত্রাণ দিয়েছি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত