ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৬:১০

প্রিন্ট

প্রেম-বিয়ে-বিতর্ক পিছু ছাড়েনি ম্যারাডোনার

প্রেম-বিয়ে-বিতর্ক পিছু ছাড়েনি ম্যারাডোনার

স্পোর্টস ডেস্ক

নিজের প্রজন্মের সেরা প্রতিভা- ম্যারাডোনা। বোকা জুনিয়ার্স, বার্সেলোনা ও নাপোলির জার্সিতে ঝকঝকে ফুটবল ক্যারিয়ার কিন্তু জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তার পারফরম্যান্স একেবারে নক্ষত্রমণ্ডলীর মতোই উজ্জ্বল। একক দক্ষতায় দেশকে বিশ্বকাপ এনে দেওয়ার মত নজির তার নামে লেখা রয়েছে। তার হঠাৎ প্রয়াণের ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা দুনিয়া। ফুটবলের অসম্ভব প্রতিভাধর এই তারকার ব্যক্তিগত জীবন যেমন বর্ণময় তেমনিই ওঠাপড়ায় ভরা৷

মাত্র ১৭ বছর বয়সে ক্লদিয়া ভিলাফেনের সঙ্গে প্রেমে পড়েছিলেন তরুণ তুর্কি দিয়েগো আর্মান্দো ম্যারাডোনা। ১৯৮৯ সালে দীর্ঘ সময়ের বান্ধবীর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন ফুটবল রাজপুত্র। ক্লদিয়া ১৯৬২ তে জন্মেছিলেন তিনি পরবর্তী পর্যায়ে টিভি পার্সোনালিটি ও প্রেজেন্টর হয়ে ওঠেন।

২০০৪ সালে দুজনের মধ্যে ডিভোর্স হয়। কিন্তু এরপরেও একাধিকবার তাদের দুজনকে একসঙ্গে দেখা গেছে। ২০০৬ বিশ্বকাপেও একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল তাদেরকে।

এ বছরেই আর্জেন্টিনা মাস্টারশেফে অংশ নিয়েছিলেন ক্লদিয়া। ২০১৮ সালে তিনি নিজের স্ত্রীর বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ করেছিলেন। ফ্লোরিডায় তার টাকা চুরি করে বাড়ি কিনেছেন তার প্রাক্তন স্ত্রী এমনটাই জানিয়েছিলেন ম্যারাডোনা।

একাধিক মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক হলেও এরপর আর বিয়ে করেননি ম্যারাডোনা। তবে ২০১২ সালে রোকিও অলিভিয়ার প্রেমে একেবারে হাবুডুবু খাচ্ছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে তাদের বাগদান পর্ব সারা হয়। রোমে একটি তারকা হোটেলে এই পর্ব সারা হয়। অলিভিয়া প্রাক্তন মহিলা ফুটবলার। আর্জেন্টিনার একাধিক ক্লাবের হয়ে খেলেছেন তিনি। তবে ২০১৮ তে বিয়ে হওয়ার আগেই ভেঙে যায় দুজনের সম্পর্ক।

ম্যারাডোনার পাঁচ সন্তান। তার এক পুত্র ডিয়েগো সিনাগ্রা ইতালিতে ক্লাব ফুটবলে খেলেন। ১৯৮৬ তে স্থানীয় নাপোলির মহিলার সঙ্গে সম্পর্কের জেরে এই ছেলের জন্ম। যা অবশ্য স্বীকৃতি দিতে চাননি ম্যারাডোনা। ২০০৭ অবধি এটাই চেয়েছিলেন তিনি।

বুয়েনস আয়ার্স সংবাদমাধ্যমে এই কাহিনী সামনে আসার পর তিনি জানিয়েছিলেন আমি তাকে খুব ভালোবাসি ও খুবই আমার মত। ২০১৯ এ তিনি তিনজন কিউবার সন্তানের পিতৃত্বের দায়িত্ব মেনে নেন। ক্লদিয়ার সঙ্গে তার দুজন কন্যা সন্তান ছিল। তাঁদের নাম ডালমা ও জিয়ানিয়া।

ম্যারাডোনার কন্যা জিয়ানিয়ার সঙ্গে আর্জেন্টাইন তারকা সার্জিও অ্যাগুয়েরোর বিবাহিত জীবন চার বছরের। এদের সন্তানের নাম বেঞ্জামিন। তাদের বিচ্ছেদ হয় ২০১২ সালে।

বাংলাদেশ জার্নাল/টিআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত