ঢাকা, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৬ অাপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ মার্চ ২০১৯, ০১:২৪

প্রিন্ট

আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ডের প্রথম টেস্ট

আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ডের প্রথম টেস্ট
অনলাইন ডেস্ক

২০১৭ সালের ২৩ জুন একত্রে টেস্ট মর্যাদা পায় আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ড। ইতোমধ্যে টেস্ট আঙ্গিনায় পা রেখেছে দল দু’টি। একটি করে ম্যাচ খেলেছে আফগান-আইরিশরা। এবার একে অন্যের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে তারা।

একমাত্র টেস্ট সিরিজটি দেরাদুনে আজ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায়।

বিশ্বের ১১ ও ১২তম দেশ হিসেবে ২০১৭ সালে টেস্ট মর্যাদা পায় আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ড। পরের বছর প্রথম টেস্ট খেলতে নামে দু’দল। ১১ মে নিজ মাঠ ডাবলিনে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় আয়ারল্যান্ডের। ব্যাট-বল হাতে দারুন লড়াই করে আইরিশরা। পঞ্চমদিনে গড়ানো টেস্টটিতে উত্তেজনা তৈরি করে আয়ারল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত অঘটনের জন্ম দিতে পারেনি তারা।

তবে পাকিস্তানের ঘাম ঝড়িয়েছে তারা। ১৬০ রানের টার্গেট দিয়ে ১৪ রানের মধ্যে পাকিস্তানের ৩ উইকেট শিকার করে আয়ারল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত ইমাম উল হকের অপরাজিত ৭৪ ও বাবর আজমের ৫৯ রানে বড় ধরনের অঘটন থেকে রক্ষা পায় পাকিস্তান। ঐ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের পক্ষে ১১৮ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেন কেভিন ও’ব্রায়ানন।

জিততে না পারলেও নিজেদের অভিষেক ম্যাচে লড়াই করার মানসিকতা দেখায় আয়ারল্যান্ড। কিন্তু আফগানিস্তানের অভিষেক টেস্ট ছিলো হতাশার।একই বছর ১৪ জুন বেঙ্গালুরুতে ভারতের মুখোমুখি হয় আফগানরা।

ভারতীয় ব্যাটসম্যান-বোলারদের দাপটে ইনিংস ও ২৬২ রানের ব্যবধানে দু’দিনেই টেস্ট হারে আফগানিস্তান। তাই নিজেদের অভিষেক টেস্ট থেকে পাওয়া হতাশা নিয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ফরম্যাট খেলতে নামতে হচ্ছে আফগানিস্তানকে।

প্রথম ম্যাচের দুঃস্মৃতি ভুলে গিয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে চান বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন আফগানিস্তানের অধিনায়ক আসগর আফগান। তিনি বলেন, ‘এটি আমাদের দ্বিতীয় টেস্ট। প্রথম টেস্টে বাজে পারফরমেন্স করেছি আমরা। এছাড়া বিশ্বের সেরা দলের সাথে খেলাটা সহজ ছিলো না। তবে এখন আমরা অনেক বেশি পরিণত। গেল এক বছরে আমরা ক্রিকেট অঙ্গনে অনেক উন্নতি করেছি। ওয়ানডে-টি-২০ ক্রিকেটের অভিজ্ঞতা আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে কাজে লাগবে বলে আশাবাদী।’

প্রথম টেস্টের স্মৃতি আফগানিস্তান ভুলে যেতে চাইলেও, নিজেদের অভিষেক ম্যাচকে মনে রাখতে চান আয়ারল্যান্ডের অধিনায়ক উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড। তিনি বলেন, ‘প্রথম টেস্টে আমরা দারুন ক্রিকেট খেলেছি। জয়ের স্বপ্নও দেখেছিলাম। কিন্তু অনভিজ্ঞ দল হওয়াতে ম্যাচটি হেরে যাই আমার। তবে আমাদের পারফরমেন্সে মুগ্ধ হয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব। অভিষেক ম্যাচের অভিজ্ঞতা এবার কাজে লাগবে। যা আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ভালো খেলতে সহায়তা করবে।’

চলতি সফরে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতে আফগানিস্তান। তবে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-২তে ড্র করে আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ড।

টেস্ট সিরিজে এই প্রথম হলেও, ইন্টারকন্টিনেনটাল কাপে চারবার মুখোমুখি হয়েছিলো আফগানিস্তান-আয়ারল্যান্ড। চারবারের দেখাতে দু’বার আফগানরা, একবার আইরিশরা ও একটি ম্যাচ হয় ড্র।

২০১০ সালে শ্রীলংকার ডাম্বুলায় প্রথম মুখোমুখি হয় দু’দল। ঐ ম্যাচটি সাত উইকেটে জিতে আফগানিস্তান। এরপর ২০১২ সালে ডাবলিনে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচটি ড্র হয়।

২০১৩ সালের ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম জয়ের স্বাদ পায় আয়ারল্যান্ড। ১২২ রানে ম্যাচটি জিতে আইরিশরা। ২০১৭ সালে মুখোমুখি হওয়া শেষ ম্যাচে ইনিংস ও ১৭২ রানে জিতে আফগানিস্তান।

আফগানিস্তান দল: আসগর আফগান (অধিনায়ক), মোহাম্মদ শেহজাদ (উইকেটরক্ষক), এহসানুল্লাহ জানাত, জাভেদ আহমাদি, রহমত শাহ, নাসির জামাল, হাশমতউল্লাহ শাহিদি, ইকরাম আলিখাইল, মোহাম্মদ নবী, রশিদ খান, ওয়াফাদার মোমান্ড, ইয়ামিন আহমাদজাই, সরফুদ্দিন আশরাফ, ওয়াকার সালামখাইল, জহির খান ও সৈয়দ শিরজাদ।

আয়ারল্যান্ড দল: উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড (অধিনায়ক), এন্ডি বলবির্নি, জেমস ক্যামেরন-ডউ, জিওর্জি ডকরেল, এন্ডি ম্যাকব্রিন, ব্যারি ম্যাককার্থি, জেমস ম্যাককোলাম, টিম মুরতাগ, কেভিন ও’ব্রায়ান, স্টুয়ার্ট পয়েন্টার, বয়েড রানকিন, সিমি সিং, পল স্ট্রার্লিং, স্টুয়ার্ট থমসন ও লরকান টাকার।

বাংলাদেশ জার্নাল/জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close