ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০২০, ১৬:৫৩

প্রিন্ট

‘বিন লাদেনকে’ কিনলে সাথে ষাঁড় ফ্রি

‘বিন লাদেনকে’ কিনলে সাথে ষাঁড় ফ্রি
সোহেল রানা, হিলি প্রতিনিধি

দিনাজপুর জেলার সর্ব দক্ষিণে অবস্থিত সীমান্তবর্তী হাকিমপুর উপজেলা। কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে হিলির খামারিরা। উপজেলা সফল গরু খামারি হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত ছাতনী গ্রামের মাহফুজার রহমান বাবু।

উপজেলা সদর থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে ছাতনী গ্রামে বাবুর খামারে সরেজমিনে গিয়ে কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে দেশি ও বিদেশি জাতের বিভিন্ন গরু লালন-পালন করার দৃশ্য দেখা যায়। তবে চোখে পড়ে সাদা রঙের একটি বৃহৎ আকারের গরু।

তার সর্ম্পকে জানতে চাইলে খামারি বাবু বলেন, শখের বসে নাম রেখেছি 'বিন লাদেন'। দাম হাকানো হচ্ছে ১৫ লাখ টাকা, সাথে ফ্রি থাকছে দেশীয় প্রজাতির একটি ষাঁড় গরু।

গরু খামারি মাহফুজার রহমান বাবু জানান, আমার শখ ছিলো কোরবানি ঈদ উপলক্ষে বড় একটি গরু লালন-পালন করবো। চার বছর আগে স্থানীয় প্রাণিসম্পদ অফিসের সহযোগিতায় খামারের একটি গরুর গর্ভে নেয়া হয় ব্রাহমা জাতের বীজ। এটি জন্ম হবার পর থেকেই সম্পূর্ণ দেশীয় ও প্রাকৃতিক খাবার দিয়ে লালন-পালন করে আসছি।

সাদা-কালো বর্ণের ব্রাহমা জাতের 'বিন লাদেন'র উচ্চতা ৫ ফুট ৩০ ইঞ্চি, লম্বায় ১১ ফুট ৬ ইঞ্চি, যার ওজন প্রায় ১১শ' কেজির ওপরে। তবে গরুটির পেছনে খরচ হয়েছে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা। ক্রেতার আকর্ষণ করাতে নাম রেখেছেন 'বিন লাদেন'। বিক্রির জন্য দাম রেখেছেন ১৫ লাখ টাকা।

তিনি আরো জানান, যিনি 'বিন লাদেন'কে কিনবেন তাকে পুরষ্কার স্বরূপ একটি দেশীয় জাতের ষাঁড় ফ্রি দেবো। তার দাবি, উত্তরবঙ্গের সবচেয়ে বড় আকারের গরু এটি। তবে এখন পর্যন্ত কোন ক্রেতার সাড়া না পাওয়ায় হতাশ তিনি।

হাকিমপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেনারী সার্জন রতন কুমার জানান, আমাদের উপজেলায় দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠেছে এখন 'বিন লাদেন'। সার্বক্ষণিক আমাদের পক্ষ থেকে তার চিকিৎসাসহ বিভিন্ন ধরণের পরার্মশ দিয়েছি খামারিকে। যেহেতু গরুটি ওজনে অনেক বেশি, স্থানীয়ভাবে বিক্রি না হলেও ঢাকায় এ ধরণের গরু বিক্রি ভালো হয়। আমরা চেষ্টা করছি ঢাকার ক্রেতার সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে গরুটি বিক্রির করার জন্য।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত