ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:৫৯

প্রিন্ট

পাবনায় দুই ঘটনায় ৩ জন নিহত

পাবনায় দুই ঘটনায় ৩ জন নিহত
ছবি: সংগৃহীত

পাবনা প্রতিনিধি

পাবনায় পৃথক দুটি ঘটনায় চরমপন্থীসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আরো অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে সাঁথিয়ায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে দুই ভাই ও ফরিদপুর উপজেলায় এক চরমপন্থী সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

শনিবার এ দুটি ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন: সাঁথিয়া উপজেলার ধোপদহ ইউনিয়নের নাড়িয়াগদাই গ্রামের সাহেব উদ্দিনের ছেলে মুন্নাফ হোসেন (৪২) ও তার মামাতো ভাই পাইকশা গ্রামের শামসুর রহমানের ছেলে নাছির হোসেন (৩৫)।

স্থানীয়রা জানান, ঘটনার দিন সকালে নাড়িয়াগদাই বাজারে একটি ক্রয়কৃত জমির উপর মুন্নাফ হোসেন ঘর তুলতে যান। এসময় প্রতিপক্ষের গোলাম আজম বাচ্চু গ্রুপের সিদ্দিকের নেতৃত্বে জমির মালিকানা দাবি করে ঘর তুলতে বাধা দেন। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্র ও লাঠির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মুন্নাফ ও সাঁথিয়া হাসপাতালে নেয়ার পথে নাছির মারা যান। সংঘর্ষে রওশন, মাহতাব, সামাদ, আকরাম ও ইয়াছিন আহত হন। গুরুতর আহত রওশন ও মাহতাবকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ নিয়ে উভয়পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পাবনার পুলিশ সুপার মুহিবুল ইসলাম খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সাাঁথিয়া থানার ওসি আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, তারা পৌরসভার নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত আছেন। তবে সংঘর্ষ ও দুইজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে পাবনার ফরিদপুরে আলমাস হোসেন (৪৫)নামক এক চরমপন্থী সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে উপজেলার হাদল ইউনিয়নের মঙ্গলগ্রামের বিল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত আলমাস হোসেন সাঁথিয়া উপজেলার তেরোখাদা গ্রামের টুন্ডু মিয়ার ছেলে।

চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহিন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, কে বা কারা তাকে হত্যা করেছেতা এখনই কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের শরীরে অসংখ্য ধারালো অস্ত্রাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

স্বজনরা জানান, শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) রাত থেকে আলমাস নিখোঁজ ছিলেন।

ফরিদপুর থানার ওসি মাসুদ রানা জানান, নিহত আলমাস নিষিদ্ধ ঘোষিত সর্বহারা বাহিনীর সদস্য বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে থাকতে পারে বলে ধারণা পুলিশ ও স্থানীয়দের।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত