ঢাকা, শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:২৪

প্রিন্ট

অপহরণের পর শিশুকে হত্যায় দুজনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

অপহরণের পর শিশুকে হত্যায় দুজনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

জার্নাল ডেস্ক

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে এক শিশুকে অপহরণ ও হত্যার দায়ে দুজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া তাঁদের এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। অপর ২ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় ঘোষণা করেন।

আমৃত্যু দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন ঘাটাইল উপজেলার রামপুর এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩০), গোপালপুর উপজেলার কামাক্ষা বাড়ী এলাকার হিরালাল আর্য্যর ছেলে গৌতম চন্দ্র আর্য্য।

১০ বছর করে কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, ঘাটাইল উপজেলার নিয়ামতপুর কাজিপুর এলাকার মো. আব্দুল হালিমের ছেলে মো. হাসান আলী (১৭) ও ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী পশ্চিম পাড়ার ফজলুল হকের ছেলে মো. সোহেল (১৭)।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এপিপি শাহানশাহ মিন্টু বাংলানিউজকে জানান, ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী গ্রামের মাজেদা বেগমের নাতি মাসুদ রানা সয়ন ২০১৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাটিকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যায়। পরে আসামিরা শিশু সয়নকে মোটরসাইকেলে করে অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে শিশুটির পরিবারের কাছে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। কিন্তু মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে শিশুটিকে হত্যা করেন তারা। এ ঘটনায় ২০১৩ সালের ৩ অক্টোবর শিশুটির নানি মাজেদা বেগম বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় গৌতম চন্দ্র আর্য্য, হাসান আলী ও মো. সোহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাকি আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার চার আসামির মধ্যে দু’জনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা করে জরিমানা করেন আদালত। আর বাকি দুই আসামি অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন শামীম চৌধুরী দয়াল ও খুকু রানী দাস। তারা বলেন, আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। এ মামলায় আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত