ঢাকা, রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭ আপডেট : ২ মিনিট আগে

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:২৭

প্রিন্ট

১৬ জেলার মানুষের উপকারে আসবে কাজীরহাট ঘাট

১৬ জেলার মানুষের উপকারে আসবে কাজীরহাট ঘাট
ছবি- প্রতিনিধি

পাবনা প্রতিনিধি

নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯ সালের জানুয়ারি মাসে নগরবাড়ী এসেছিলেন। তখন থেকেই তিনি নগরবাড়ী ঘাটকে আগের রূপে ফিরিয়ে আনার স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি এখানে নৌবন্দর ও মেরিন একাডেমি স্থাপন করে দিয়েছেন। তার বিশেষ নির্দেশে যমুনার তীরে এই কাজীরহাট (নগরবাড়ী) ফেরিঘাট আবার চালু হলো। এতে উত্তরের ১৬টি জেলার মানুষ উপকৃত হবেন।

শনিবার দুপরে পাবনার বেড়া উপজেলার কাজীরহাটে আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এক যুগ পর পাবনার ঐতিহ্যবাহী (নগরবাড়ী) কাজীরহাট-আরিচা ফেরি সার্ভিস বন্ধ থাকার পর আবার চালু হলো। এ উপলক্ষে কাজীরহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষর (বিআইডব্লিউটিএ) আয়োজনে এ সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক।

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, কাজীরহাট-আরিচা রুটে ফেরি চলাচল আবার চালু হওয়ায় দেশের অর্থনীতি আরো গতিশীল হবে। ব্যবসায়ীরা লাভবান হবে, লাভ হবে দেশের। অন্যদিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর চাপ কমবে, জনদুর্ভোগ কমবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ আজ উন্নত দেশের দিকে ধাবিত হচ্ছে। এক সময়ের উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার খ্যাত এ এলাকা আবার প্রাণ ফিরে পাওয়ায় দেশের অর্থনীতি আরও চাঙ্গা হবে।

তিনি বলেন, এ সরকার এ অঞ্চলের জন্য যা করেছেন বা করছেন, তার জন্য জনগণকেও কৃতজ্ঞ থাকতে হবে। সরকারের উন্নয়নমূলক কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, এমপি গোলাম ফারুক প্রিন্স, এমপি আহমেদ ফিরোজ কবীর, এমপি নাঈমুর রহমান দুর্জয়, বিআইডব্লিউটিসি'র অতিরিক্ত সচিব ও চেয়ারম্যান সৈয়দ তাজুল ইসলাম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ ও পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান।

শেষে প্রধান অতিথিসহ অন্যরা উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রী কাজীরহাট-আরিচা নৌরুটের আরিচা ঘাটে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত