ঢাকা, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ১৬ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৩ মার্চ ২০২১, ০২:৪১

প্রিন্ট

শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির দায়ে মাদ্রাসা সুপার হাজতে

শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির দায়ে মাদ্রাসা সুপার হাজতে
ছবি প্রতীকী

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভায় একটি মাদ্রাসার ১০ বছরের এক শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির দায়ে মাদ্রাসার সুপারকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অভিযুক্ত মাদ্রাসা সুপারের নাম মাওলানা আবদুর রহিম। যৌন হয়রানির ঘটনাটি ঘটেছে ২৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে মাদ্রাসার ছাদে। সোমবার রাতে রামগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। মঙ্গলবার কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী পৌর শহরের শিশুপার্ক সংলগ্ন মাহফুজুল কোরআন ইসলামী একাডেমির হেফজ বিভাগে পড়াশোনা করতো। ২২ ফেব্রুয়ারি পড়ানোর কথা বলে ওই শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার সুপার আবদুর রহিম তার কক্ষে ডেকে নিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন। এসময় ওই শিক্ষার্থী বাধা দিলে তাকে লাথি মারেন আবদুর রহিম।

এতে ওই ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে প্রথমে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১ মার্চ (সোমবার) ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে রিলিজ নিয়ে সরাসরি রামগঞ্জ থানায় গিয়ে মামলা করে ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিবার। অভিযোগের ভিত্তিতে রামগঞ্জ থানা পুলিশ সোমবার রাতে মাওলানা আবদুর রহিমকে গ্রেপ্তার করেছে।

ভুক্তভোগীর শিক্ষার্থীর মা অভিযোগ করে বলেন, থানায় মামলা দায়েরের পর থেকে মাওলানা রহিমের আত্বীয়-স্বজন বিষয়টি মীমাংসার জন্য চাপ দিচ্ছে। তবে তার এমন কুকর্মের জন্য আমি তার বিচার দাবি করছি।

রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, শিশু শিক্ষার্থীর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে আবদুর রহিমকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন- চাঁদপুরে পুলিশের অভিযানে ৪৭ জন কিশোর আটক

বাংলাদেশ জার্নাল/আর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত