ঢাকা, সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

এসডিজি বাস্তবায়নে নারীরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ০২:২০

এসডিজি বাস্তবায়নে নারীরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে
সাসটেইনেবিলিটি লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড (এমএলএ) অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্য দিচ্ছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে। অর্থনীতি ও সামাজিক উন্নয়নে এসডিজি বাস্তবায়নের গুরুত্ব দিয়ে অনেক ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। আর এতে নারীরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে সাসটেইনেবিলিটি লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড (এমএলএ) অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বিজিএমইএ এবং জার্মান উন্নয়ন সংস্থা (জিআইজেড) জিএমবিএইচ যৌথভাবে এই পুরষ্কারের আয়োজন করেছে। বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান এতে সভাপতিত্ব করেন।

স্পিকার বলেন, নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার ফলে সবক্ষেত্রে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বিশেষ করে নারীর শিক্ষা-স্বাস্থ্য বিশেষ গুরুত্ব দেয়ায় কঠিন এই পথ পাড়ি দিতে সহজে বড় হয়েছে। নারীর স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও ক্ষমতার দিকে গুরুত্ব দিচ্ছে বর্তমান সরকার। যার ফলে এসডিজি বাস্তবায়ন সহজ হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হয়। সামাজিক প্রতিপালন, পরিবেশগত উৎকর্ষতা এবং উদ্ভাবনী শ্রেষ্ঠত্ব। এই তিনটি শ্রেণীর অধীনে নয়টি উপ-বিভাগে পুরস্কারগুলো দেয়া হয়।

সামাজিক প্রতিপালন বা সোশ্যাল স্টান্ডার্ডসের মধ্যে সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য কারখানা সেটআপ- ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে ভিন্টেজ ডেনিম স্টুডিও লিমিটেড এবং রানার আপ হয়েছে ইকোটেক্স লিমিটেড৷ কর্মক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়ন- ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে অনন্ত গার্মেন্টস লিমিটেড, রানার আপ হয়েছে প্যাসিফিক জিন্স লিমিটেড৷ সেরা সামাজিক উদ্যোগ ‌‘নেবারহুড অব আ ফ্যাক্টরি’- ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে এপিলিয়ন নিটওয়ার লিমিটেড ও রানার আপ হয় ফ্ল্যামিংগো ফ্যাশনস লিমিটেড।

পরিবেশগত উৎকর্ষতা বা এনভায়রনমেন্টার এক্সিলেন্সের মধ্যে সেরা পরিবেশবান্ধব- ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে এনভয় টেক্সটাইল লিমিটেড এবং রানার আপ হয়েছে জাবের অ্যান্ড জুবায়ের ফেব্রিক্স লিমিটেড৷ কম পানি ব্যবহার-ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে কালার সিটি লিমিটেড এবং রানার আপ হয়েছে ইউনিভার্সাল জিন্স লিমিটেড৷ টেক্সটাইল বর্জ্য পদার্থের পুনরব্যবহার- ক্যাটাগরিতে সম্মিলিতভাবে বিজয়ী হয়েছে ম্যাটিন স্পিনিং মিলস লিমিটেড ও সিমকো স্পিনিং অ্যান্ড টেক্সটাইল লিমিটেড। এতে রানার আপ হয়েছে কারুপণ্য রংপুর লিমিটেড।

সর্বশেষ, উদ্ভাবনী শ্রেষ্ঠত্ব বা ইনোভেশন এক্সিলেন্স এ ব্যবসায়িক দিক থেকে সেরা উদ্ভাবনী ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে কারুপণ্য রংপুর লিমিটেড ও রানার আপ হয়েছে জে এম ফেব্রিক্স লিমিটেড৷ সেরা ভবিষ্যৎ বিষয়ক উদ্ভাবনীয়-ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে বেক্সিমকো রিকভার এবং রানার আপ হয়েছে জিন্নাত ফ্যাশনস লিমিটেড। সেরা কর্মী কল্যাণ উদ্ভাবনীয়- ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছে স্কোয়ার ফ্যাশনস লিমিটেড এবং রানার আপ হয়েছে এসকিউ সেলসিয়াস লিমিটেড।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত