ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২০ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:৪৫

প্রিন্ট

পুরুষশূন্য বাড়িতে নজর, ধর্ষণের পর করতেন হত্যা

পুরুষশূন্য বাড়িতে নজর, ধর্ষণের পর করতেন হত্যা
অনলাইন ডেস্ক

নাটোরে আট হত্যাকণ্ডের সঙ্গে জড়িত সিরিয়াল লেডি কিলার বাবু শেখ ওরফে কালুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে নাটোর রেলস্টেশন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার হরিশপুর গ্রামের বাসিন্দা।

শনিবার সন্ধ্যায় আটকের পর নাটোরে পাঁচটি, টাঙ্গাইলে দুটি ও নওগাঁয় একটি হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে বাবু। তিনি জানান যাদের হত্যা করা হয় তাদের মধ্যে তিনজনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়।

রোববার দুপুরে নাটোর এসপির কার্যালয়ে এসব তথ্য জানান রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি একেএম হাফিজ আকতার।

তিনি বলেন, নাটোরের লালপুর উপজেলার চংধুপইল এলাকার আনসার সদস্য সাবিনা পারভীন ও বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তীপুর এলাকায় রেহেনা বেগমকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয় ৯ অক্টোবর। এ ঘটনায় দুই থানায় মামলা দায়েরের পর মাঠে নামে পুলিশ। তদন্তের ধারাবাহিকতায় প্রথমে নাটোরের সিংড়া থেকে রুবেল আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেয়া তথ্যে নাটোর শহরের স্বর্ণকার লিটন খাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর উভয়ের তথ্যের ভিত্তিতে আসাদুল ইসলামকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, দুই হত্যার সঙ্গে জড়িত বাবু শেখ ও রুবেল। শনিবার সন্ধ্যায় বাবু শেখকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাবুকে গ্রেপ্তারের পর তিনি নাটোরের পাঁচ নারীকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

ডিআইজি হাফিজ আরো জানান, জেলে সেজে বিভিন্ন জেলায় ঘুরে বেড়াতেন বাবু। পুরুষশূন্য বাড়িতে তার নজর থাকতো। সুযোগ বুঝে রাতে ওইসব বাড়িতে ঢুকে শ্বাসরোধে হত্যার পর টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটে নিতেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত