ঢাকা, শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ১৮ আশ্বিন ১৪২৭ আপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০২০, ১৫:২৪

প্রিন্ট

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন উচ্চধাপে ফিক্সেশনের আদেশ জারি

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন উচ্চধাপে ফিক্সেশনের আদেশ জারি
ফাইল ছবি
জার্নাল ডেস্ক

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা বেতন স্কেল পরিবর্তনে দীর্ঘ দিন থেকে আন্দোলন করে আসছিলেন। দীর্ঘ আন্দোলনের পর গত ৯ ফেব্রুয়ারি সহকারী শিক্ষকদের ১৪ থেকে একধাপ বাড়িয়ে ১৩তম গ্রেড নির্ধারণ করে আদেশ জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

যদিও এর ফলে শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে উন্নীত করার দাবি পূরণ হয়নি। এমনকি ১৩তম গ্রেডে কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের বেতন কমে যাবে বলে আশঙ্কা করছিলেন শিক্ষকরা। যদিও অবশেষে শিক্ষকদের সে দুশ্চিন্তা কেটেছে। যেসব শিক্ষকের বর্তমান বেতন ১৩ গ্রেডের নিম্নধাপের চেয়েও বেশি তাদের বেতন উচ্চধাপে নির্ধারণ করার আদেশ জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়। আদেশটি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আদেশে বলা হয়েছে-

১) বেতন স্কেল উন্নীত হওয়ার পূর্বে সহকারী শিক্ষক পদধারীদের যিনি যে সংখ্যক টাইমস্কেল পেয়েছেন, উন্নীত বেতন স্কেলের উপরে সেই সংখ্যক টাইমস্কেল গণনা করে বেতন স্কেল উন্নীত করার অব্যবহিত পূর্বে তার সর্বশেষ প্রাপ্ত মূল বেতনের ভিত্তিতে বেতন নির্ধারণ হবে।

২) বেতন স্কেল উন্নীতকরণের তারিখে টাইমস্কেলসহ নিরূপণকৃত স্কেলে কোনো কর্মচারীর বর্তমান মূল বেতন উক্ত স্কেলের সর্বনিম্ন ধাপের কম হলে সর্বনিম্ন ধাপে বেতন নির্ধারণ করতে হবে।

৩) বর্তমান মূলবেতন নিরূপণকৃত স্কেলের সর্বনিম্ন ধাপের চেয়ে বেশি হলে এবং উক্ত স্কেলের কোনো ধাপের সমান হলে সেই ধাপে বেতন নির্ধারণ করতে হবে।

৪) বর্তমান মূল বেতন নিরূপণকৃত স্কেলের সর্বনিম্ন ধাপের বেশি হলে এবং উক্ত স্কেলের কোনো ধাপের সমান না হলে সে ক্ষেত্রে অব্যবহিত উচ্চতর ধাপে বেতন নির্ধারণ করতে হবে।

৫) স্কেল উন্নীতকরণের আদেশ জারির পূর্বের কোনো বকেয়া পাবেন না।

প্রসঙ্গত, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের গ্রেড গত ফেব্রুয়ারিতে উন্নীত করে সরকার। সারাদেশের তিন লাখ ৭৫ হাজার শিক্ষকের বেতন বাড়িয়ে আদেশ জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত