ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ১৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৩৯

প্রিন্ট

শিক্ষকদের প্রমোশন নিয়ে যা বললেন গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

শিক্ষকদের প্রমোশন নিয়ে যা বললেন গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী
জার্নাল ডেস্ক

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, সকল চাকরিতে প্রমোশন থাকা দরকার। উপরে যাওয়ার একটা প্রতিযোগিতা থাকা দরকার। কিন্তু এখানে সেটা নেই। আমরা চাচ্ছি এই নিয়মের পরিবর্তন হোক। মন্ত্রণালয়ে তাদের দাবিগুলো নিয়ে আলাপচারিতা হয়েছে। ইতিমধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সহকারী শিক্ষককে সহকারী প্রধান, সহকারী প্রধানদের প্রধান শিক্ষক করার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

শনিবার দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশো অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করতে পেরেছিলেন সোনার বাংলা গড়তে হলে জাতিকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে অনেক দূর এগিয়েছি, জাতি অনেকদূর এগিয়েছে। আমরাও মানসম্মত শিক্ষার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশ, ২০৪১ সালে আমরা উন্নত দেশে যাবো। সোনার বাংলাদেশ করতে চাই।

এসময় সহকারী শিক্ষক আবু সাঈদ মো. মাসুদুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৭৩ সালে এক ঘোষণায় ৩৭ হাজার বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেছেন। তিনি শিক্ষা বান্ধব ছিলেন, শিক্ষকদের জন্য অনেক কিছু করেছেন। তিনি সহকারী শিক্ষকদের সাথে প্রধান শিক্ষকদের কোন বেতন বৈষম্য রাখেননি। তখন একই স্কেলে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষক বেতন পেতেন। বর্তমানে প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে সহকারী শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য তিনটি ধাপ। বাংলাদেশের সকল সহকারী শিক্ষকদের প্রাণের দাবী প্রধান শিক্ষকের পরের ধাপটি আমাদের দেওয়া হোক। মন্ত্রী বলেন, আপনার কথা আমি নোট নিলাম। বিবেচনা করবো।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, নন্দীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কামরুন নাহার। সিঙ্গাইর সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাহফুজা খাতুন। পরাণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু সাঈদ মো. মাসুদুর রহমান। বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোটার্স ফোরামের সভাপতি মোস্তফা মল্লিক। অভিভাবক, ফারজানা রহমান। তৃতীয় শেণির শিক্ষার্থী লাবিবা আফরিন।

আরএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত