ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:৩১

প্রিন্ট

দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সরকারের নির্দেশনা

দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সরকারের নির্দেশনা
নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। বাঙালি জাতির ইতিহাসে একটি বেদনাদায়ক দিন। ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ ডিসেম্বর বাঙালির বিজয় নিশ্চিত জেনে প্রথিতযশা ও খ্যাতনামা বুদ্ধিজীবীদের নির্বিচারে হত্যা করে বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করার অপচেষ্টা চালায় পাক হানাদর বাহিনী। এ বর্বর হত্যাকাণ্ড বিশ্বব্যাপী নিন্দিত। শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে আগামী ১৪ ডিসেম্বর (শনিবার) দেশের স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা সভা আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

জানা গেছে, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন উপলক্ষে আয়োজিত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপন করতে বলা হয়েছে। দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে ১৪ ডিসেম্বর জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে এদিন আলোচনা সভা আয়োজন করতে হবে।

সূত্র আরও জানায়, গত ১৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এত সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। সভায় কর্মকর্তারা জানান, মহান মুক্তিযদ্ধে বিজয়ের প্রাক্কালে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বরেণ্য শিক্ষাবিদ, শিক্ষক, গবেষক, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, সাংবাদিক, কবি, সাহিত্যিকদের ধরে নিয়ে নির্মম অত্যাচার চালিয়ে হত্যা করা হয়। ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ ডিসেম্বর সংঘঠিত এ হত্যাকাণ্ড ছিল পৃথিবীর ইতিহাসে জঘন্যতম বর্বর ঘটনা, যা বিশ্বব্যাপী শান্তিকামী মানুষতে স্তম্ভিত করেছিল। তাই, জেলা ও উপজেলায় স্কুল কলেজ, মাদরাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে বিশেষ আলোচনা সভা আয়োজন করার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক যথাসময়ে এ বিষয়ে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান।

সে প্রেক্ষিতে সভায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের তৎপর্য তুলে ধরে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটির আলোচনা সভা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্র আরও জানায়, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের তৎপর্য তুলে ধরে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটির আলোচনা সভা আয়োজনের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা অধিদপ্তরগুলোকে পাঠানো হয়েছে। কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে গত ২৮ নভেম্বর এ সংক্রান্ত চিঠি কারিগরি শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর ও মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরে পাঠানো হয়। গত ১ ডিসেম্বর মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের তৎপর্য তুলে ধরে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটির আলোচনা সভা আয়োজনে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত