ঢাকা, শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১৩:০২

প্রিন্ট

সিনেমার ইতিহাসে এক ‘মুক্তার মালা’ রিয়াজ

সিনেমার ইতিহাসে এক ‘মুক্তার মালা’ রিয়াজ

বিনোদন ডেস্ক

৪৭ পেরিয়ে ৪৮ বসন্তে পা রাখলেন ঢাকাই সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় চিত্রনায়ক রিয়াজ। পুরো নাম রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সিদ্দিক হলেও সবার কাছে তিনি রিয়াজ নামেই পরিচিত। অভিনয় গুণে নিজস্বতায় নিজেকে এক অনন্য মাত্রায় নিয়ে গেছেন এই নায়ক। নানামাত্রিক চরিত্রে অভিনয় করে দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। তাকে বলা হয় রোমান্টিক কিং।

এই নায়ককে ছাড়া ঢাকাই সিনেমার ইতিহাস অসম্পূর্ণ। অভিনয়, ব্যক্তিত্ব, নিজস্বতায় তিনি অন্যান্য অনেক নায়কের চেয়ে এগিয়ে। সিনেমার ইতিহাসে তিনি এক মুক্তার মালা।

আজ সোমবার এই নায়কের জন্মদিন। ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। ঘড়ির কাঁটা বারোটা পেরোতেই ভক্ত অনুরাগীসহ সহকর্মীদের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন তিনি। দিনটিতে তেমন কোন আয়োজন না থাকলেও পরিবারের সঙ্গেই দিনটি উদযাপন করবেন তিনি।

যশোরের ছেলে রিয়াজ ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনায় মেধাবী ছিলেন। চাকরিজীবন শুরু করেছিলেন বিমানবাহিনীর পাইলট হিসেবে৷ এরপর চাকরি ছেড়ে দিয়ে নাম লেখান রূপালি পর্দায়। ১৯৯৫ সালে প্রয়াত নায়ক জসীমের হাত ধরে ‘বাংলার নায়ক’ নামের চলচ্চিত্রের মাধ্যমে রিয়াজের অভিষেক হয়।

এরপর বেশ কিছু সিনেমায় কাজ করেন। সেখানে অন্যান্য নায়কের চেয়ে নিজস্বতায় এগিয়ে ছিলেন এই নায়ক। যার কারণে পরিচালকদের নজরে আসতে সক্ষম হন তিনি। সেসময় জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা নায়ক সালমান শাহের সঙ্গে সিনেমাতে অভিনয় করে তুমুল প্রশংসিত হন। এরপর ১৯৯৭ সালে মহম্মদ হান্নান পরিচালিত ‘প্রাণের চেয়ে প্রিয়’ ছবির মাধ্যমে জনপ্রিয় নায়কে পরিণত হন রিয়াজ।

এরপর শাবনূরের সঙ্গে জুটি বেঁধে আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তা পান রিয়াজ। নানা কারণে সেই জুটি ভেঙ্গে গেলে পূর্ণিমার সঙ্গেও জুটি বেঁধে দারুণ সাফল্য পান রিয়াজ। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করা রিয়াজ উপহার দিয়েছেন ‘নারীর মন’, ‘বিয়ের ফুল’, ‘এই মন চায় যে’, ‘হৃদয়ের আয়না’, ‘প্রাণের চেয়ে প্রিয়’, ‘প্রেমের তাজমহল’, ‘স্বপ্নের বাসর’, ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’, ‘হৃদয়ের বন্ধন’, ‘দুই দুয়ারী’, ‘কাজের মেয়ে’, ‘শ্যামল ছায়া’, ‘দারুচিনি দ্বীপ’, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’, ‘সাবধান’, ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘হৃদয়ের কথা’, ‘খবরদার’, ‘লাল দরিয়া’, ‘মিলন হবে কতদিনে’, ‘শাস্তি’, ‘কি যাদু করিলা’, ‘হাজার বছর ধরে’, ‘পাগল তোর জন্য’, ‘কৃষ্ণপক্ষ’সহ অসংখ্য ব্যবসা সফল ও প্রশংসিত সিনেমা।

দেশীয় সিনেমার বাইরে একটি ইংরেজি সিনেমাতেও দেখা গিয়েছে তাকে। ভারতীয় চলচ্চিত্রকার ও অভিনেতা মহেশ মাঞ্জরেকারের ‘ইট ওয়াজ রেইনিং দ্যাট নাইট’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন রিয়াজ। ছবিটিতে রিয়াজের নায়িকা ছিলেন বলিউডের সুস্মিতা সেন। এছাড়াও কলকাতার সঙ্গে বেশ কিছু যৌথ প্রযোজনার ছবিতেও দেখা গেছে তাকে।

প্রায় অনেকদিন ধরে সিনেমাতে অনিয়মিত হলেও সম্প্রতি আবারও নতুন করে কাজ শুরু করেছেন তিনি। দীপংকর দীপনের ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবিতে কাজ করছেন রিয়াজ। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। চলচ্চিত্রগুলো হলো- ‘দুই দুয়ারী’ (২০০০), ‘দারুচিনি দ্বীপ’ (২০০৭) ও ‘কি যাদু করিলা’ (২০০৮)।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত