ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৭ মার্চ ২০২১, ১৭:৫৬

প্রিন্ট

রোমান্টিক ইমেজের বাইরেও অনবদ্য মেহজাবীন

রোমান্টিক ইমেজের বাইরেও অনবদ্য মেহজাবীন
‘কনকচাপা’ নাটকের দৃশ্যে মেহজাবীন চৌধুরী

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রচলিত ধারা থেকে একটু বাহিরে গিয়ে কাজ করেন বলে অনেকেই তাকে ব্যতিক্রমী বলেও আখ্যায়িত করেন। ব্যতিক্রম বলেই অল্প সময়ে সর্বমহলকে একটু বেশিই আকৃষ্ট করে নিয়েছেন তিনি। সময়ের সেরা ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। দিনের পর দিনে নানামাত্রিক চরিত্রে অভিনয় তাকে করে তুলেছে পরিপূর্ণ।

এই সময়ে তরুণদের মধ্যে অভিনয়ে হয়ে উঠেছেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। গল্প ও চরিত্র নিয়ে গবেষণা করা, নিজেকে ধারণ করা; এটাই যেন তার বৈশিষ্ট্যে পরিণত হয়েছে। রোমান্টিক, সামাজিক, স্যাড, সচেতনতামূলক, পারিবারিকসহ সব ধরণের গল্পে ও চরিত্রে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিয়েছেন। নিজেকে গড়ে তুলেছেন পানির পাত্রের মত। তাকে যেই চরিত্রই দেওয়া হোক না কেন, সেটাতে পারদর্শিতার ছাপ রাখেনই তিনি।

সম্প্রতি ‘কনকচাপা’ শিরোনামে নারী দিবসের বিশেষ একটি নাটকের শুটিং শেষ করেছেন তিনি। শামীম শিকদারের গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন সঞ্জয় সমদ্দার। এখানে মেহজাবীন অভিনয় করেছেন একজন ‘ধর্ষিতা’র চরিত্রে। রোমান্টিক ইমেজের বাইরেও যে অভিনেত্রী তার চরিত্রে অভিনয়ের আলাদা ছাপ রাখতে পারেন; তা প্রমাণ করেছেন এই লাক্সতারকা। মফস্বলের একটি সহজ,সরল ও চঞ্চল প্রকৃতির মেয়ে কীভাবে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠে তা-ই দেখানো হয়েছে এখানে।

এমন চরিত্রে অভিনয় করা প্রসঙ্গে মেহজাবীন চৌধুরী বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, একটা রোমান্টিক চরিত্র করা যতটা সহজ ঠিক ততোটাই কঠিন এরকম চরিত্রগুলো করা। আমি সবসময় আমার চরিত্রে ভ্যারিয়েশন আনতে চেয়েছি আর সেটাই করছি। আর বিশেষ করে এই চরিত্রটি করা অনেকটা দায়িত্ববোধের জায়গা থেকে। এর আগেও এমন চরিত্রে কাজ করেছি।

নাটকটি প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন, একটা মফস্বল শহরের গল্প এটি। সেখানকার মানুষদের মন-মানসিকতা, চিন্তা-ভাবনা কেমন! আর সেখানে একটা মেয়ের সাথে ধর্ষণের মতো কুৎসিত ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর তার উপর দিয়ে কী যায়, মানুষজন মেয়েটাকে তখন কীভাবে ট্রিট করে; তারই আলোকে নাটকটি নির্মিত হয়েছে। আমাদের সমাজে কারও সাথে এমন জঘন্য ঘটনা ঘটলে মানুষজন ভিক্টিমকেই দোষারোপ করে থাকে বেশি, যেটা আসলে রীতিমত অন্যায়।

নির্মাতা সঞ্জয় সমদ্দার বলেন, একটা মফস্বল শহরের মেয়ে যে অবাধে ডানা মেলে চলতে পছন্দ করে তার সাথে ঘটে যাওয়া একটা কুৎসিত ঘটনা নিয়েই এই নাটকের গল্প। সচেতনতামূলক এই নাটকের মাধ্যমে এটাই দেখাতে চেয়েছি যে, ধর্ষণের মতো কুৎসিত ঘটনার জন্য শুধুমাত্র একজন ধর্ষকই দায়ী। পুরুষ নারীর পাশে থাকে আর কাপুরুষ ধর্ষণ করে। আর এখানে দর্শকরা একটি টুইস্ট দেখতে পাবে, যেটা বলতে চাই না। আমি চাই, দর্শকরা খুঁজে বের করুক সেটা।

নারী দিবস উপলক্ষে বিশেষ এই নাটকটি আগামীকাল ৮ মার্চ রাত ৮টায় আরটিভি চ্যানেলে এবং একইদিনে রাত ৯টা ৩০মিনিটে এটি অবমুক্ত হবে সাউন্ডটেকের ইউটিউব চ্যানেলে। এখানে মেহজাবীন ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন রাশেদ মামুন অপু, ফখরুল বাশার মাসুম, মিলি বাশার, ফয়সাল, কায়েস, জামশেদ শামীম প্রমুখ।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত