ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:৪৮

প্রিন্ট

‘সময়ের প্রয়োজনে অশ্লীল ছবি করেছি’

‘সময়ের প্রয়োজনে অশ্লীল ছবি করেছি’
আসিফ আলম

পলি ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা। যাকে কিনা অশ্লীল চলচ্চিত্রের নায়িকা হিসেবে অভিহিত করা হয়। প্রায় ১১৩টি ছবিতে অভিনয় করেছেন এই নায়িকা। যেখানে তার নায়ক হিসেবে ছিলেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের মান্না, শাকিব খান, রুবেল, আমিন খান, অমিত হাসান, আলেক জান্ডার বো, মেহেদীসহ অনেকে।

বেশ লম্বা সময় হলো চলচ্চিত্র থেকে দূরে আছেন এই নায়িকা। আপাতত ব্যক্তিগত জীবন নিয়েই ব্যস্ত আছেন তিনি। তবে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে তাকে। সম্প্রতি হয়ে যাওয়া শিল্পী সমিতির বনভোজনে গিয়েছিলেন তিনি। যেখানে চলচ্চিত্রের নায়ক-নায়িকারা মেতে ছিলেন আড্ডায়। সেই আড্ডার ফাঁকে বাংলাদেশ জার্নালের প্রতিবেদকের সাথে কথা হলো এই নায়িকার।

অনেকেই আপনাকে অশ্লীল ছবির নায়িকা হিসেবে চিনেন বিষয়টি আপনি কিভাবে দেখছেন জানতে চাইলে পলি বলেন, ‘যখন অশ্লীল ছবি করেছি ওগুলো ছিল সময়ের প্রয়োজনে। তখন ঐসব ছবি দিয়েই চলচ্চিত্র বেঁচে ছিলো। এখন আর সেই দিন নেই। বদলে গেছে অনেক কিছুই। কে কি বললো তা নিয়ে আমার কিছু বলার বা ভাবার সময় নেই। সময় বদলে গেছে। এখন দর্শকদের রুচিও বদলেছে।’

বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে জানতে এই নায়িকা বলেন, ‘এখন আমি আমার ব্যবসা নিয়েই ব্যস্ত আছি। আমার একটি বুটিক হাউজ আছে সেটাতে সময় নেই। পাশাপাশি আমার চারটা বাচ্চা। সবাই ইংলিশ মিডিয়ামে পড়াশোনা করেন। তাদের নিয়েই সময় কাটে আমার।’

কিছু দিন আগে শোনা গিয়েছিলো প্রযোজনা করবেন তার কি হলো এখন এমন প্রশ্নের জবাবে বেশ হতাশা নিয়েই পলি বলেন, ‘হুম চিন্তা ছিলো করবো কিন্তু এখন চলচ্চিত্রের যা অবস্থা তাতে লগ্লী করা সম্ভব নয়। কেননা লগ্নী করলে তা ফিরে আসবে না। এরচেয়ে অন্য ব্যবসায় পুঁজি বিনিয়োগ করাই ভালো।’

চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা নিয়ে পলি বলেন, ‘তখন চলচ্চিত্রের দূর্দিন নয় সুদিন ছিল বলে দাবি করে পলি বলেন, আমি এক মাসে ৩৬ সিনেমায় সাইন করেছিলাম। আমি যখন কাজ করতাম তখন তো বছরে ১১০-১১২টা ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেত। আর এখন দেখেন অর্ধশত ছবিও পায়না। এখন আমাদের চলচ্চিত্রের শিল্পীরা ভাগাভাগি হয়ে গেছেন। কারো মধ্যে একতা নেই। নায়ক-নায়িকারা সবার সাথে কাজ করতে পারেনা। এখন নায়িকাদের নায়করা বন্দি করে রাখছে। ফলে এখন তো ফ্লেক্সিবল হয়ে কেউ কাজ করতে পারছেনা। এসব বন্ধ হলে আবার ছবি নির্মাণের সংখ্যা বাড়বে। ছবির সংখ্যা বাড়লে ভালো ছবির সংখ্যাও বাড়বে। দর্শকও বাড়বে।’

মোহাম্মদ হোসেন পরিচালিত ফায়ার ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে পলির। প্রথম ছবিতেই তার বিপরীতে অভিনয় করেন নায়ক মান্না। আর এ ছবিতে অভিনয়ের পরই বিতর্কের মুখে পড়েন পলি। এরপর একের পর এক চলচ্চিত্রে অশ্লীল অভিনয় করতে থাকেন পলি। সারাদেশব্যাপী তিনি বিতর্কিত হতে থাকেন। বাংলাদেশের প্রসাশন যখন চলচ্চিত্রে অশ্লীলতার বিরুদ্ধে কঠোর হতে শুরু করে, তখন পলির অভিনয়ের জনপ্রিয়তা হারিয়ে যেতে থাকে। তিনি মূলধারার চলচ্চিত্র থেকে দূরে সরে যান।

তার অভিনীত সর্বশেষ ‘এক নম্বর আসামী’ শিরোনামের চলচ্চিত্রটি ২০১২ সালে মুক্তি পায়। রাজু চৌধুরী পরিচালিত এ সিনেমায় পলির বিপরীতে অভিনয় করেন চিত্রনায়ক রুবেল।

বাংলাদেশ জার্নাল/ এএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close