ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২০ জানুয়ারি ২০২০, ১২:১২

প্রিন্ট

শহরে সহিংস বিক্ষোভের পর এক নেতাকে আটক

হংকংয়ে সহিংস বিক্ষোভের পর এক নেতাকে আটক
অনলাইন ডেস্ক

হংকংয়ে ভয়াবহ বিক্ষোভের জের ধরে বিক্ষোভে অর্থের যোগানদাতা ও গণতন্ত্রতান্ত্রিক আন্দোলনের অন্যতম এক নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

এ সম্পর্কে হংকং সিভিল অ্যাসেম্বলি টিম এক বিবৃতিতে জানায়, রোববার সন্ধ্যায় ওই বিক্ষোভের মূল হোতা ভেনটুস লাউকে আটক করেছে পুলিশ। বিক্ষোভের শর্ত ভঙ্গ ও পুলিশের কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে তাকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে রোববার দুপুরে হংকং জুড়ে যে ভয়াবহ বিক্ষোভ হয় তার প্রধান আয়োজক ছিলেন গণতন্ত্রমনা ভেনটুস লাউ। তিনিই বিক্ষোভ মিছিলের জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ‘নো অবজেকশন’অনুমতিপত্রটি আদায় করে এনেছিলেন। পুলিশ তাদের কেবল শহরের অন্যতম আর্থিক কেন্দ্র সেন্ট্রাল স্ট্রিটে বিক্ষোভ র‌্যালি করার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু পরে লোক সমাগম বেশি হওয়ায় এটি আর ওই নির্দিষ্ট সড়কে সীমাবদ্ধ রাখা সম্ভব হয়নি। হাজার হাজার মানুষের চাপে এক পর্যায়ে ওই বিক্ষোভ র‌্যালি আশপাশের সড়কগুলোতেও ছড়িয়ে পড়ে। এসময় অনেক বিক্ষোভকারী ছাতা, আসবাবপত্র ও ইট ফেলে সড়ক অবরোধ করে এবং যান চলাচল বন্ধ করে দেয়।

বিক্ষোভ মিছিলে বহু প্রবীণ মানুষ এমনকি সপরিবারেও অনেকে অংশ নিয়েছিলেন। তাদের অনেকের মুখ ঢাকা ছিল কালো মুখোশে। হাতে ছিলো গণতন্ত্রের দাবি সম্বলিত নানা প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার।

র‌্যালি শুরু হওয়ার মাত্র দেড় ঘণ্টা পরই এতে বাধা দেয় পুলিশ। তারা এই বিক্ষোভ মিছিলকে বেআইনি দাবি করে এটি বন্ধ করারও দাবি জানায়। কিন্তু পুলিশের দাবি অগ্রাহ্য করে বিক্ষোভ মিছিল চলতে থাকে। ফলে দু পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। মিছিল থেকে পুলিশের ওপর পাথর ছুড়ে মারা হয়। জবাবে বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠিচার্জ ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে পুলিশ।

পরে এ ঘটনা সম্পর্কে দেয়া এক বিবৃতিতে পুলিশ একে‘ভয়াবহ সংঘাত’হিসাবে বর্ণনা করেছে। এছাড়া এই সংঘর্ষে দু’জন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হওয়ারও দাবি করেছেন হংকং পুলিশ।

মিছিলের আয়োজকারীরা জানান, রোববারের ওই মিছিলে দেড় লাখের বেশি মানুষ অংশ নিয়েছিল। অন্যদিকে পুলিশ ভেবেছিলো, এতে বড়জোর ১০-১১ হাজার মানুষ হবে। তাদের ধারণার বেশি জনসমাগম হওয়ার কারণেই তারা ওই মিছিলে বাধা দেয়।

প্রসঙ্গত, হংকংয়ের গণতন্ত্রকামী জনগণ চীনা শাসনের অবসানের দাবিতে গত বছরের জুন মাস থেকে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ শুরু করেছে। ফলে গত বছরের অর্ধেক সময় জুড়েই চলেছে এ বিক্ষোভ। নতুন বছরের প্রথম দিনেও বদলায়নি দৃশ্যপট। প্রতিবাদের মাধ্যমেই নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছিল হংকংয়ের গণতন্ত্রকামী বিক্ষোভকারীরা। বুধবার নতুন বছরের প্রথম দিনে নানা প্রদেশে বিভিন্ন শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করেছিল গণতন্ত্রকামী সংগঠনগুলি। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও রবার বুলেট ছোড়ে পুলিশ। সেদিন কমপক্ষে ৪শ জনকে আটক করেছিলো পুলিশ।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত