ঢাকা, শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:২৫

প্রিন্ট

৯৪% কার্যকরের দাবি, টিকার অনুমোদন চায় মডার্না

৯৪% কার্যকরের দাবি, টিকার অনুমোদন চায় মডার্না
ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মডার্না নিজেদের তৈরি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন মানবদেহে পরীক্ষায় ৯৪ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করেছে। টিকাটি জরুরি চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিতে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে সোমবার আবেদন করার কথা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

মডার্নার তৈরি ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত ফলাফল নিয়ে সোমবার প্রকাশিত এক সংবাদ প্রতিবেদনে গার্ডিয়ান জানায়, এবার কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ব্যবহারের জন্য বিশ্বজুড়ে অনুমোদন পাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।

অনুমোদন পেতে সোমবারই ইউরোপ ও আমেরিকায় আবেদনের ঘোষণা দিয়ে মডার্না বলছে, আগামী ১৭ ডিসেম্বরের বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের (এফডিএ) অনুমোদন মিলবে বলে প্রত্যাশা তাদের।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, মডার্নার টিকাটি মানবদেহে পরীক্ষায় ৯৪ দশমিক ১ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ইউরোপীয় ওষুধ সংস্থার (ইএমএ) কাছে টিকাটি শর্ত সাপেক্ষে বাজারজাতকরণের আবেদনও করা হবে।

এএফপি জানায়, দেশটিতে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর ওপর টিকার পরীক্ষা চালানো হয়েছে, যাদের মধ্যে অপেক্ষাকৃত বেশি ঝুঁকিতে থাকা বয়স্ক ব্যক্তিরাও রয়েছেন।

এই টিকার মারাত্মক কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বলে ট্রায়ালের চূড়ান্ত ফলাফলের বরাতে জানিয়েছে মডার্না। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, এটি বেশ সহনীয়। প্রথম ডোজ প্রয়োগের পর বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অবসাদ, মাংসপেশিতে ব্যথা, গিঁটে ব্যথা, মাথাব্যথা এবং ইনজেকশন যে জায়গায় প্রয়োগ করা হয়, সেখানে ব্যথা ও লালচে ভাব দেখা গেছে। টিকাটির দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগের পর এসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মাত্রা কিছুটা বেড়েছে। এ ছাড়া গুরুতর কিংবা নতুন কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

বিবিসি জানায়, আবেদনের পর নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলো টিকাটির মানবদেহে পরীক্ষার ফলাফলের তথ্যগুলো যাচাই–বাছাই করবে। এতে টিকাটি কার্যকর ও নিরাপদ বলে প্রমাণ পাওয়া গেলেই কেবল তা জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া হবে।

বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন কোম্পানি মডার্নার ভ্যাকসিন ক্রয়ে চুক্তি করলেও সবার আগে এই ভ্যাকসিন পাবে যুক্তরাষ্ট্র। এই বছরই যুক্তরাষ্ট্রে দুই কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহের আশাবাদ ব্যক্ত করেছে কোম্পানিটি। আর ২০২১ সালে বিশ্বজুড়ে ৫০ কোটি থেকে ১০০ কোটি ডোজ টিকা সরবরাহের প্রত্যাশায়ও করছে তারা।

আরও পড়ুন- করোনা আতঙ্কে শ্রীলঙ্কার কারাগারে দাঙ্গায় নিহত ৮

বাংলাদেশ জার্নাল/আর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত