ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:০১

প্রিন্ট

নরওয়েতে বছরে ৩ হাজার মানুষের ইসলাম গ্রহণ

নরওয়েতে বছরে ৩ হাজার মানুষের ইসলাম গ্রহণ
অনলাইন ডেস্ক

ইউরোপের দেশ নরওয়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম হচ্ছে ইসলাম। স্বাভাবিকভাবে দেশটির সংখ্যাগুরু জনসংখ্যা হচ্ছে খ্রিস্টান। দেশটির ২০১৮ সালের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, এখানকার মোট জনসংখ্যার ৩.১৫ শতাংশ মুসলিম। অর্থ নরওয়েতে বসবাসকারী মুসলিমদের সংখ্যা ১ লাখ ৬৬ হাজার ৮৬১ জন।

তবে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দেশটিতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের প্রবণতা বৃদ্ধি পাওয়ায় মুসলিমদের সংখ্যা দিনে দিনে বেড়েই যাচ্ছে।

অসলো বিশ্ববিদ্যালয়ের কালচারাল স্টাডিজ অ্যান্ড অরিয়েন্টাল ল্যাঙ্গুয়েজ বিভাগের একজন গবেষকের বরাত দিয়ে দেশটির প্রভাবশালী দৈনিক ভারডেনস গ্যাঙ্গে এক প্রতিবেদনটিতে জানায়, বছরে প্রায় তিন হাজার নরওয়েজিয় নাগরিক ইসলাম গ্রহণ করছেন। অথচ নব্বই দশকের ড়োড়ার দিকে বছরে মাত্র পাঁচশ’জন ইসলাম গ্রহণ করতেন। অর্থাৎ দেশটিতে ইসলামে দীক্ষিত হওয়ার সংখ্যা কয়েক গুণ বেড়ে গেছে।

আগে নরওয়েজিয় নারীদের মুসলিম পুরুষদের বিয়ে করার জন্য ইসলাম গ্রহণের প্রবণতা থাকলেও বর্তমানে সেই চিত্র সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে। বর্তমানে নারীরা ইসলাম সম্পর্কে পরিপূর্ণ অধ্যয়ন ও গবেষণার পরই ইসলাম গ্রহণ করছেন।

ওই প্রতিবেদককে ইসলাম গ্রহণকারী নরওয়েজিয় নারী মনিকা সালমুক জানান, চার বছর পূর্বে বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে গবেষণা ও বিভিন্ন গ্রন্থ অধ্যয়নের পর তিনি ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হয়েছেন। আর ৪২ বছর বয়সী নরওয়েজিয় নারী সোলভা নাবিলা স্যাক্সেলিন জানান, নরওয়েতে আশ্রয় নেওয়া মুসলিম শরণার্থীদের সাহায্য করতে গিয়ে তাদের কাছ থেকে তিনি ইসলাম গ্রহণের অনুপ্রেরণা পেয়েছেন।

নরওয়েতে মুসলিমদের অবস্থান দৃশ্যমান হতে শুরু করেছিলো গত শতাব্দীর ষাটের দশকে। যদিও দেশটির রাজধানী অসলোতে প্রথম মসজিদ স্থাপিত হয়েছিলো ১৯৭৪ সালে। কিন্তু গত কয়েক বছরে পরিস্থিতি পুরোটাই পাল্টে গেছে। যে কারণে মুসলিমরা এখন নরওয়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনগোষ্ঠীতে পরিণত হয়েছে।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত