ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৫৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০২০, ১৭:৩৪

প্রিন্ট

ঘরে বসেই বিশ্বমানের পড়াশুনা

শেখা, শেখানো ও উপার্জনের সুযোগ স্কলার্স-হোমে

শেখা, শেখানো ও উপার্জনের সুযোগ স্কলার্স-হোমে
অমিয়া হাশেম

নভেল করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিশ্বজুড়েই এখন অচলাবস্থা। ওলটপালট হয়ে গেছে পুরো শিক্ষা কার্যক্রম। সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা। সামাজিক দূরত্বের এই পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ঘরে বসেই একাডেমিক পড়াশুনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে শেখার সুযোগ করে দিয়েছে স্কলার্স-হোম (https://scholars-home.org)। শেখা, শেখানো ও উপার্জনের বহুমুখী সুবিধা নিয়ে গড়ে তোলা এই অনলাইন প্ল্যাটফর্ম এরইমধ্যে শিক্ষার দ্রুত বিকাশমান মার্কেট প্লেসে পরিণত হয়েছে। জনপ্রিয়তা পেয়েছে দেশ-বিদেশে।

অনলাইন যোগাযোগ মাধ্যম : স্কলার্স-হোম ব্যবহার করে বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে যে কেউ শিখতে এবং শেখাতে পারে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে লাইভ ভিডিও ব্যবস্থায় মিলবে শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ। এছাড়াও অনলাইনে অডিও এবং চ্যাটিংয়ের মাধ্যমেও শিক্ষক ও শিক্ষার্থী যোগাযোগ রক্ষা করবেন। পড়াশুনার জন্য পছন্দমতো সময় নির্ধারণ করে নেওয়া যাবে। ইনোভেশন প্লেস ইউএসের অনলাইনভিত্তিক এই উদ্যোগ মূলত উম্মুক্ত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। নানা পর্যায়ের ছাত্র-ছাত্রী এখানে অংশ নিতে পারে। বয়সের বাঁধাধরা নিয়ম নেই। পেশাজীবীরাও অনলাইনের মাধ্যমে পড়াশোনা ও বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা বাড়াতে পারেন।

অনলাইন ক্লাসরুম : পড়াশুনার জন্য রয়েছে অনলাইন ক্লাসরুম বা শ্রেণীকক্ষের ব্যবস্থা। যে কেউ স্কালার্স-হোমের ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন। মোবাইল ফোনসেট, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে এই ক্লাসরুমে অংশ নেওয়া যাবে। অনলাইনের বিশাল এই শিক্ষা প্ল্যাটফর্মে শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী ক্লাসে অংশ নিতে পারে। প্রয়োজনমত নির্দিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞ শিক্ষকদের সঙ্গে ঘণ্টাভিত্তিক চুক্তি করা যাবে। গনিত, ইংরেজী, বিজ্ঞান, কম্পিউটারসহ বিভিন্ন বিষয়ের সমস্যা সমাধান করার জন্য রয়েছে অভিজ্ঞ শিক্ষকদের প্যানেল। পেশাজীবী শ্রেণী অথবা যারা বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা বাড়াতে চান তাদের জন্য রয়েছে বিশেষ সুযোগ। আইএলটিএস, জিআরই, জিম্যাট, স্যাট, টোফেল, প্রোগ্রামিং, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, মেশিন লার্নিং, এনএলপি, ক্রিয়েটিভ ডিজাইন, মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টসহ অনেক বিষয়ের অভিজ্ঞ শিক্ষক রয়েছেন এখানে।

হোয়াইট বোর্ড ফ্রি হ্যান্ড রাইটিং ও রিসোর্স শেয়ারিং : স্কলার্স-হোম সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে হোয়াইট বোর্ড ফ্রি হ্যান্ড রাইটিংয়ের সুযোগ দিচ্ছে। ফলে শিক্ষার্থীরা সহজেই শিখতে পারছেন। সেই সঙ্গে রয়েছে রিসোর্স ফাইল আপলোড ও শেয়ারের ব্যবস্থা। ক্লাস লেকচার, পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন, ইমেজ, ভিডিও ফাইলসহ পড়াশুনার নানা অনুসঙ্গ শিক্ষক ও শিক্ষার্থী আদান-প্রদান করতে পারবেন।

শিক্ষার দ্রুত বিকাশমান মার্কেট প্লেস : স্কলার্স হোম ইতোমধ্যে শিক্ষার দ্রুত বিকাশমান মার্কেট প্লেসে পরিণত হয়েছে, যেখানে শিক্ষা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পর্যায়ের অংশীজন তাদের কাজের সঠিক আর্থিক মূল্যায়ন পেতে পারেন। শুধু ব্যক্তি নয়, প্রাতিষ্ঠানিকভাবেও অংশগ্রহণের অনেক বড় সুযোগ এনে দিয়েছে স্কলার্স হোম। শিক্ষক কিংবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার বিভিন্ন প্যাকেজ স্কলার্স হোমে বিপনণ করতে পারবে। যে কোনো কোচিং সেন্টারের জন্যও এই প্লাটফর্ম বিশাল এক সুযোগ। বিপনণযোগ্য প্যাকেজের মধ্যে হতে পারে নানারকম কোর্স, পুর্নাঙ্গ ক্লাস টিউটোরিয়াল, লেকচার্স, ম্যাটারিয়ালস, লাইভ ক্লাস, প্রিপারেটরি টেস্ট, মডেল টেস্ট প্রভৃতি।

উপার্জন ও নিরাপদ পেমেন্ট গেটওয়ে: স্কলার্স-হোম শিক্ষকদের দিচ্ছে অর্থ উপার্জনের সুযোগ। সম্মানী পাওয়ার জন্য রয়েছে শতভাগ নিরাপদ ও নিশ্চিত ব্যবস্থা। কোনো শিক্ষার্থী ক্লাস শিডিউল নির্দিষ্ট করলে শিক্ষক সে অনুযায়ী সম্মানী পেয়ে যাবেন। মোবাইল ব্যাংকিং ও ব্যাংকের কার্ডসহ আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য নিরাপত্তা সুবিধা সম্পন্ন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করা যাবে। ব্যবহার করা যাবে ভিসা, মাস্টারকার্ড।

প্রতিষ্ঠাতা যা বললেন : স্কলার্স-হোম এবং ইনোভেশন প্লেস ইউএসের প্রতিষ্ঠাতা, প্রধান বিজ্ঞানী ও সিইও ড. মো. আলাউদ্দীন ভূঁইয়া। তিনি নিউইয়র্কের আইকান স্কুল অব মেডিসিন মাউন্ট সিনাইয়ের সহযোগী অধ্যাপক ও বিশেষজ্ঞ। হার্ভাড স্কলার এবং নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিশ্বের খ্যাতনামা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করা এই বাংলাদেশী বর্তমানে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সসহ বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা করছেন। স্কলার্স-হোম নিয়ে তিনি বলেন, যারা জ্ঞান পিপাসু, শিখতে আগ্রহী এবং অভিজ্ঞ শিক্ষক খুঁজছেন, তাদের চাহিদা মেটানোর জন্যই এই উদ্যোগ। এক ক্লিকেই এখানে শিক্ষার সবকিছু পাওয়া যাবে। এই প্ল্যাটফর্মে দেশ বিদেশের দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকদের একত্রিত করা হয়েছে। শিক্ষার্থী-শিক্ষক উভয়েই স্কলার্স-হোম থেকে উপকৃত হবেন। মহামারীর এই সময়ে জীবনযাপনের জন্য শিক্ষকের উপার্জন এবং শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা কোনোটাই থেমে থাকা উচিত নয়। স্কলার্স-হোম এক্ষেত্রে সবার জন্য উম্মুক্ত একটি সুযোগ।

লেখক: শিক্ষার্থী

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত