ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৫ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২০, ২০:২৪

প্রিন্ট

ঢাকাসহ সারাদেশে বাড়ছে অপরাধ

ঢাকাসহ সারাদেশে বাড়ছে অপরাধ
সুশান্ত সাহা

রাজধানীসহ সারাদেশে হঠাৎ করেই বেড়েছে খুন, ধর্ষণ, মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতিও সাইবার অপরাধসহ নানা ধরনের অপরাধ। করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে লকডাউনের মধ্যে গত এপ্রিলে দেশের থানাগুলোতে মামলার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমে এলেও জুনের পর আবার তা বাড়ছে। বিদেশি অপরাধীরাও বেশ সক্রিয়। তারা চোরাচালান, মাদক পাচারসহ বিভিন্ন ধরনের সাইবার অপরাধে জড়িত।

এদিকে অপরাধ রোধে আইনি নিয়ন্ত্রণের চেয়ে সামাজিক নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি বেশি কার্যকর বলে মনে করছেন অপরাধ বিশ্লেষকরা।

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্যানুযায়ী, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত ধর্ষণ হয়েছে ৮৮৯টি, স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন ১৮৯ নারী, শিশু খুন হয়েছে ৪০৮টি যাদের অধিকাংশের বয়স ৬ এর নিচে।

সর্বশেষ ৩০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর হাজারীবাগের বটতলা এলাকায় স্ত্রীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডার জের ধরে বাবা তার দুই সন্তানের গলায় ছুরি চালিয়ে নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। বাবার ছুরির আঘাতে সাত বছর বয়সী মেয়ে রোজা মারা যায়। গুরুতর অবস্থায় বাবা জাভেদ হোসেন ও তার ছেলে রোজেনকে (১৪) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, জাভেদ বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে ছয়-সাত লাখ টাকা ঋণ নিয়েছেন। সম্প্রতি আর্থিক অনটন প্রকট হয়ে ওঠে। ধারণা করা হচ্ছে, এ কারণেই মানসিক অশান্তি থেকে জাভেদ তার দুই শিশু সন্তানের গলায় ছুরি চালান। পরে একই ছুরি নিজের গলায় চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

৩০ সেপ্টেম্বর মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় যাত্রীবেশে চালকের গলা ও শরীরে ছুরিকাঘাত করে অটোরিকশা ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা।

২৯ সেপ্টেম্বর যশোরে দিনদুপুরে বোমা ফাটিয়ে এবং এক ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত করে ১৭ লাখ টাকা ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা। দুপুর ২টার দিকে কোতোয়ালি থানার পাশে ইউসিবিএল ব্যাংকের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত এনামুল হককে (২৫) যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পর খুলনায় স্থানান্তর করা হয়েছে। তার সাথে থাকা ইমনকে (২৪) পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এনামুল হক শহরের বকচরের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

২৯ সেপ্টেম্বর রাতে রাজশাহীর তানোর উপজেলার একটি গির্জায় তিনদিন আটকে রেখে এক কিশোরীকে (১৫) ধর্ষণ করার অভিযোগে গির্জার ফাদার প্রদীপ গ্যাগরীকে (৫০) গ্রেপ্তার করে র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যা ব)।

২৭ সেপ্টেম্বর রাতে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের (বিডিবিএল) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ শাখার নৈশপ্রহরী রাজেশ বিশ্বাসকে (২৩) খুন করে ব্যাংক লুটের চেষ্টার করে দুর্বৃত্তরা। এঘটনায় জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত ১৬ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর কুড়িলে মডেল বানানোর কথা বলে বাসায় এনে চার ছাত্রীকে ধর্ষণ। এঘটনা একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

২৭ সেপ্টেম্বর কেরানীগঞ্জ মডেল টাউন এলাকায় টাইলস পরিস্কারের কথা বলে ৩৮ বছর বয়সী এক নারীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। বিষয়টি টের পেয়ে এলাকাবাসী ধর্ষককে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে বেড়াতে যান দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকার এক দম্পতি। এ সময় স্বামীসহ ওই গৃহবধূকে পার্শ্ববর্তী ছাত্রাবাসে তুলে নিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণের ঘটনায় সমালোচনা ঝড় উঠেছে দেশজুড়ে। যদিও এ ঘটনায় কয়েকজনকে আটক করলেও এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় উদ্বিগ্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

গত ২৩ সেপ্টম্বর রাজধানীর কড়াইল বস্তিতে সকালে ১৪ বছর বয়সী বড় ভাই আল আমিন চার বছর বয়সের ছোট বোন নুসরাত জাহান মিমকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে র্যা বের তদন্তে উঠে আসে ছোট বোনের প্রতি মা-বাবার বেশি ভালোবাসায় ঈর্ষান্বিত হয়ে সে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাত ২টায় মিরপুর থানাধীন মধ্য মনিপুরপাড়া এলাকায় মুমূর্ষু স্বামীকে রক্ত জোগাড় করে দেয়ার কথা বলে অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে স্ত্রীকে ধর্ষণ করে এক ব্যক্তি। এ কাজে অভিযুক্তকে সহযোগিতা করেন অপর এক নারী। পরে তাদের দুজনকে গ্রেফতার করে র্যা ব।

২৫ সেপ্টেম্বর দক্ষিণখান থানার ফায়দাবাদ এলাকায় স্ত্রীর আগের ঘরের ১৫ বছর বয়সি ছেলের হাতে খুন হন বাবা মো. মিলন শেখ। মায়ের সঙ্গে দেখা করতে বাধা দেয়ায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় পুলিশ। গত ২০ সেপ্টেম্বর প্রেমে ব্যর্থ হয়ে সাভারে স্কুলছাত্রী নীলাকে ছুরি মেরে হত্যা করে বখাটে মিজান।

গত ২০ সেপ্টেম্বর রাজধানী মিরপুর পল্লবীর একটি বাসায় ৬৫ বছর বয়সি শ্বশুরের হাতে ধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। জরুরিসেবা ৯৯৯ এ ফোন করে সহায়তা চান ধর্ষিতা। পরে আটক হলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন শ্বশুর।

গত ১২ সেপ্টেম্বর রাতে শেরেবাংলা নগর থানার বৌ-বাজার মোড়ে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকারে আসা চারজন ডাকাত বিকাশ এজেন্টকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আহত করে আট লাখ টাকা ও মোবাইল ফোনসহ সবকিছু নিয়ে পালিয়ে যায়। আশেপাশের লোকজন আহত বিকাশ এজেন্টকে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল এবং পরবর্তী সময়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা হয়। এঘটনায় পুলিশ বিকাশের টাকা ডাকাতি চক্রের মূলহোতাসহ চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।

গত ২ সেপ্টেম্বর দিনগত রাত আড়াইটার দিকে দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম সরকারি বাসভবনে ঢুকে হামলা করে দুর্বৃত্তরা। প্রথমে গেটে দারোয়ানকে বেঁধে ফেলে তারা। পরে বাসার পেছনে গিয়ে মই দিয়ে উঠে ভেন্টিলেটর ভেঙে বাসায় প্রবেশ করে হামলাকারীরা। ভেতরে ঢুকে ভারী ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং আঘাত করে ইউএনও ওয়াহিদাকে গুরুতর আহত করে তারা। এ সময় মেয়েকে বাঁচাতে এলে বাবা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে (৭০) জখম করে দুর্বৃত্তরা। পরে তারা অচেতন হয়ে পড়লে মৃত ভেবে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। ভোরে স্থানীয়রা টের পেয়ে তাদের উদ্ধার করেন। ওয়াহিদাকে প্রথমে রংপুরে ও পরে রংপুর থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে ঢাকায় আনা হয়। বর্তমান তিনি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এদিকে নাইজেরিয়া, ঘানাসহ আফ্রিকার বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিকরা বাংলাদেশে অবস্থান করছে। তাদের অপরাধ-সিন্ডিকেট গড়ায় সহায়তা করছে স্থানীয় লোকজন। এই অপরাধীরা ট্যুরিস্ট, খেলোয়াড়, বিজনেস বা স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশে আসে। ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তারা ফিরে না গিয়ে অবৈধভাবে বাস করে। পরিচয় পাল্টে স্থানীয় তরুণীসহ কিছু লোককে দলে ভিড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতারণার ফাঁদ পাতছে তারা। গত দুই মাসে সিআইডি, ডিবি, পিবিআই ও র্যা ব এ জাতীয় অর্ধশতাধিক বিদেশিকে গ্রেপ্তার করেছে। ফেসবুকে উপহার পাঠানোর নামে প্রতারণা; প্রচলিত-অপ্রচলিত মাদকের কারবার; ব্যাংকের এটিএম বুথে জালিয়াতি, জাল মুদ্রার কারবার, অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা, সোনা চোরাচালান, অনলাইনে ক্যাসিনো এবং মানবপাচার প্রভৃতি অপরাধে জড়িত অন্তত ২৫টি দেশের নাগরিক বাংলাদেশে রয়েছে। ৯০ শতাংশই আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের। তারা সাধারণত অভিজাত এলাকায় থাকে।

নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, অপরাধ দমনে পুলিশ সব সময় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু শুধু আইন প্রয়োগ করে অপরাধ নিন্ত্রণ করা সবম্ভ নয়। সামাজিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিকসহ নানা ধরনের বিষয়াদি জড়িত রয়েছে। তাই আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিকভাবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা উচিৎ বলে মনে করেন পুলিশের এ কর্মকতা।

আরো পড়ুন

দিন দিন ভয়ংকর হয়ে উঠছে কিশোর গ্যাং

রাজধানীসহ সারাদেশে বাড়ছে খুন-খারাবি

বাংলাদেশ জার্নাল/এসএস/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত