ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ২ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০২১, ১৯:৪৮

প্রিন্ট

মেকশিপট হাসপাতাল তৈরি করার আহ্বান

মেকশিপট হাসপাতাল তৈরি করার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে মেকশিপট হাসপাতাল তৈরি করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি।

শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এই আহ্বান জানানো হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

বৈঠকে বলা হয়, সময়মত লকডাউন ঘোষণা না করে পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে সাহায্য করেছে। লকডাউন ঘোষণা করার পরেও গণপরিবহন চালু করা, শপিংমল, দোকানপাট খুলে দেয়া এবং গার্মেন্টস চালু রাখা প্রমাণ করেছে যে, সরকারের সিদ্ধান্তহীনতা ও সমন্বয়ের অভাবে জনগণের জীবন ও জীবিকা বিপন্ন হয়ে পড়েছে। অবিলম্বে চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে মেকশিপট হাসপাতাল তৈরি করা, যথেষ্ট পরিমাণে বেড, অক্সিজেন সরবরাহ, আইসিইউ এবং ভেন্টিলেটরের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

বৈঠকে দিন আনে দিন খায় মানুষ, মাঝারি, ছোট কল কারখানার শ্রমিক, রিকশা-ভ্যান শ্রমিক, গণপরিবহন শ্রমিক, কৃষক এবং অপ্রাতিষ্ঠানিক (ছোট ও ক্ষুদ্র) উদ্যোক্তাদের ভাতা প্রদানের আহ্বান জানানো হয়। পাশাপাশি বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে টাস্কফোর্স গঠন করে মানুষের জীবিকা ও অর্থনীতিকে সচল রাখার পরিকল্পনা ও রোডম্যাপ প্রস্তুত করে ব্যাপক প্রণোদনা প্রদানেরও আহ্বান জানানো হয়।

বৈঠক মনে করে ১৪ এপ্রিল হতে যে লকডাউনের প্রস্তাব করা হয়েছে তাতে দিন আনে দিন খায় মানুষ, নিম্ন আয়ের মানুষ ও সব পেশার শ্রমিকদের ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে।

বৈঠকে নেতা বলেন, ২০২০ সালের মার্চ মাস হতে যথেষ্ট সময় হাতে পাওয়ার পরেও সরকারি হাসপাতালগুলোতে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় বেড, অক্সিজেন, আইসিইউ, ভেন্টিলেটর সহযোজন করতে সরকার ব্যর্থ হয়। উপরন্ত বসুন্ধরা ও মহাখালীতে যে জরুরি হাসপাতাল নির্মাণ করা হয় যথাক্রমে ৩১ কোটি ও ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তা বন্ধ করে দেয়া হয় এবং বসুন্ধরা এবং মহাখালীর হাসপাতাল দুটি উধাও হয়ে যায়। সংক্রমণের হার ও মৃত্যুর হার যে, আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে তা ইতিমধ্যেই জনগণের মধ্যে ভীতি ও আতংকের সৃষ্টি করেছে।

সরকারের সীমাহীন উদাসীনতা, অযোগ্যতা ও সমন্বয়হীনতার কারণে করোনা পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হয়েছে বলে মনে করেন বিএনপির নেতারা। তারা বৈঠকে বলেন, সরকার স্বাস্থ্য সেবায় চরম দুর্নীতি এবং কোভিড-১৯ এবং চিকিৎসা নিয়ে যে ব্যাপক ভয়াবহ দুর্নীতি করেছে তারই ফলশ্রুতিতে আজকে করোনায় চিকিৎসা ও প্রতিরোধ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙ্গে পড়েছে।

বৈঠকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ৪০টি দেশের নেতৃবৃন্দর শীর্ষ বৈঠকে সময়োচিত বলে মনে করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশের বর্তমান সরকার দূর্নীতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল হতে প্রাপ্ত অনুদান নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে এবং বেশ কিছু অংশ ফেরত গেছে। এই বিষয়ে বিস্তারিত বক্তব্য ও প্রস্তাব নিয়ে পরবর্তীতে সংবাদ সম্মেলনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বৈঠকে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের নিকট শীতলক্ষ্যা নদীতে বাগেরহাট-২ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্যের মালিকানাধীন জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবে যাওয়ায় প্রায় ৩৫ জনের মৃত্যুর ঘটনার দায়ী জাহাজের মালিক, চালকসহ কারও বিরুদ্ধেই মামলা না করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। অবিলম্বে মালিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানায় বিএনপি।

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় সংঘটিত ঘটনায় বিএনপির পক্ষ থেকে জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দ এবং আইনজীবী সমন্বয়ে ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে অবিলম্বে তদন্ত সম্পূর্ণ করে তার প্রতিবেদন প্রকাশ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বৈঠকে।

উক্ত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত