ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০৪

প্রিন্ট

বিশ্ব ইজতেমায় নতুন রেকর্ড

বিশ্ব ইজতেমায় নতুন রেকর্ড
জার্নাল ডেস্ক

টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে শেষ হয়েছে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিশ্ব সম্মেলন ইজতেমার প্রথম পর্ব। আজ রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এই পর্ব শেষ হয়। ইজতেমার সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অন্য যেকোনো বারের তুলনায় এবারের ইজতেমায় মুসল্লির সংখ্যা বেশি। প্রথম পর্বের শুরুর দিন থেকেই দলে দলে মুসল্লিরা ইজতেমা মাঠে এসে জড়ো হন। আর আজ এই সংখ্যা রেকর্ড ছুঁয়েছে বলে জানাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা।

ইজতেমায় মুসল্লিদের দেখভালের কাজে নিয়োজিত কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ আখেরি মোনাজাতে প্রায় ৬০ লাখেরও বেশি মানুষের সমাগম ঘটেছে। মুসল্লিদের আগমনে সর্বকালের নতুন রেকর্ড এটা।

ইজতেমার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মীরা বলছেন, অন্যবারের তুলনায় এবারের ইজতেমায় মুসল্লির সংখ্যা বেশি। মুসল্লিদের জায়গার সংকুলান না হওয়ায় ইজতেমা মাঠের পূর্ব ও পশ্চিম পাশে নতুন করে ১৪টি খিত্তা (নির্ধারিত স্থান) যুক্ত করার মাধ্যমে মাঠের পরিধি বাড়ানো হয়েছিলো। কিন্তু তবুও মুসল্লিদের জায়গা হচ্ছিলো না। পুরো ইজতেমাকে ৯১টি খিত্তায় ভাগ করা হয়। এরপরও জায়গা না পাওয়ায় ময়দানের বাইরে রাস্তায় অবস্থান করেছেন মুসল্লিরা।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক, আবদুল্লাহপুর-আশুলিয়া সড়ক, স্টেশনরোড-কামারপাড়া সড়কসহ ইজতেমার ময়দানে প্রবেশের রাস্তার দুই পাশে মুসল্লিরা অবস্থান নেয়ায় রাস্তাগুলো সঙ্কুচিত হয়ে যায়। কোথাও কোথাও যানবাহন এমনকি হাঁটার পথও বন্ধ হয়ে যায়। উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের বিভিন্ন রাস্তায়ও তাবু ফেলেন মুসল্লিরা।

আজ রোববার বাদ ফজর শুরু হয় হেদায়েতি বয়ান। ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে এ হেদায়েতি বয়ান পেশ করেন পাকিস্তান তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বি মওলানা জিয়াউল হক। হেদায়েতি বয়ান শেষে ভারতের ইবরাহিম দেওলা সমাপনি বয়ান শুরু করেন। এরপর শুরু হয় আখেরি মোনাজাত। রোববার বেলা ১১টার একটু পরে শুরু হয় আখেরি মোনাজাত। যা চলে প্রায় ৪৫ মিনিট। মোনাজাত পরিচালনা করেন বাংলাদেশি মাওলানা হাফেজ মো. জোবায়ের।

বিশ্ব তাবলিগ জামাতের আমির ভারতের মাওলানা জোবায়েরুল হাসানের মৃত্যুর পর থেকে ইজতেমার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করছিলেন দেশটির আরেক শীর্ষস্থানীয় আলেম মাওলানা সাদ কান্ধলভী। কিন্তু তাকে নিয়ে সৃষ্টি হওয়া বিতর্ককে ঘিরে গত বছর থেকে আলাদভাবে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ১৭ জানুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব বা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীদের ইজতেমা।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত