ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ আপডেট : ৩০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৬ মার্চ ২০২০, ১৬:৪৮

প্রিন্ট

পাখিও বোঝে ম্যাজিকের ‘মজা’

পাখিও বোঝে ম্যাজিকের ‘মজা’

Evaly

ফিচার ডেস্ক

অনেকেই মনে করে পাখির সাথে মানুষের খুব একটা মিল নেই। কারো কারো আবার প্রশ্ন আসে, পাখি কী আমাদের মতো চিন্তাভাবনা করতে পারে?

আর এসব প্রশ্নেরই জবাব খুঁজেছে ইংল্যান্ডের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী। তারা মনে করেন, বহু দিক থেকেই মানুষ আর পাখি একই রকমভাবে চিন্তা করে।

পাখিদের চিন্তা সম্পর্কে ধারণা পেতে গবেষকরা কিছু প্রকিয়ার আশ্রয় নেন। গবেষকদল তাদের গবেষণার জন্য একটি বাচ্চা স্টুকা পাখিকে পরীক্ষা করে দেখেন। তারা পাখিটিকে একটি বাদাম দেয় যেটি গ্লাস জাতীয় বস্তুর নিচে লুকানো ছিলো। পাখিটি সেগুলো গ্লাস তুলে খুঁজে নেয়। পাখিটি মানুষের মতোই বাদামটিকে লক্ষ্য করে।

যে গবেষকদল এ গবেষণা চালাচ্ছে সে দলে রয়েছেন একজন ম্যাজিশিয়ান ও একজন মনোবিজ্ঞানী। অবশ্য গবেষণার ক্ষেত্রে ম্যাজিশিয়ানদের সাথে বিজ্ঞানীদের কাজ করার নজীর কম। তবে, সেখান থেকে মাঝেমধ্যে ম্যাজিকের মতোই ফল পাওয়া যায়।

এ দলের একজন সদস্য কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিকোলা ক্লেটন। তিনি বলেন, আমরা প্রথমে পাখিটিকে দেখতে দেই বাদামগুলো। এরপর কাপের নীচে সেটিকে লুকিয়ে রাখি।

তিনি আরো বলেন, আমরা প্রথমে মানুষের জন্য কিছু পরীক্ষার কথা ভাবি। এরপর আমাদের মাথায় আসে অন্য প্রাণীর জন্যও পরীক্ষাটা কাজে লাগবে। বিশেষভাবে সেই পাখিদের জন্য যারা খাবার লুকিয়ে রাখে। তাদের খাবার যাতে অন্য কেউ চুরি করতে না পারে। নানান কৌশল ব্যবহারে পাখিদের সুবিধা হয়।

পাখিদের সম্পর্কে একটা মজার ব্যাপার লক্ষ্য করা হচ্ছে। ম্যাজিক দেখে আমাদের মতোই তারা প্রথমবার মনে করে এখানে অদ্ভুত কিছু ঘটছে। দ্বিতীয়বার দেখেও তারা একই জিনিস মনে করে এরপর তৃতীয় বা চতুর্থবারে তারা বিষয়টি ধরে ফেলে।

গবেষক দলের দাবি, পাখিরা মানুষের মতোই সব পর্যবেক্ষণ করে। গবেষণা করে এবং শেষ পর্যন্ত ম্যাজিক ট্রিকটি ধরে ফেলে। এই ধরনের চিন্তাশক্তি প্রাণী জগতে বেশ বিরল। এ পর্যন্ত শুধুমাত্র মানুষ, শিম্পাঞ্জি, করভিড জাতের পাখি আর অক্টোপাস জাতীয় প্রাণীর মধ্যে এটা লক্ষ্য করা যায়।

‘আমাদের ধারণা আমাদের বিকাশ কীভাবে ঘটেছে এ থেকে তার একটা ধারণাও পাওয়া যায়।’

অবশ্য মানুষ-পাখির মধ্যে তেমন মিল নেই। মানুষের হাত আছে, ঠোঁট আছে। অন্যান্য পার্থক্যও আছে। কিন্তু বুদ্ধমত্তার বিকাশের ক্ষেত্রে আমাদের মধ্যে বেশ মিল রয়েছে।

তাদের মতে, কাক অথবা শিপাঞ্জি কিংবা বোনবোর মতো বাঁদরজাতীয় প্রাণীকে সম্ভবত একই ধরনের সমস্যা। মোকাবেলাও করতে হয়েছে। তারা সম্ভবত একইভাবে সমস্য্ন সমাধান করেছে। ফলে এভাবেই তাদের বুদ্ধিমত্তা বিকশিত হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

shopno
  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
best