ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৮ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ১ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৯ মে ২০২১, ১৬:১৩

প্রিন্ট

ফের ফলোঅনে জিম্বাবুয়ে

ফের ফলোঅনে জিম্বাবুয়ে
সংগৃহীত ছবি

জার্নাল ডেস্ক

হারারেতে ২ ম্যাচ টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও পাকিস্তানের রান পাহাড়ে চাপা পড়েছে জিম্বাবুয়ে। আবিদ আলীর ক্যারিয়ারের প্রথম দ্বিশতক ও আজহার আলীর শতকে সফরকারীদের গড়া পাহাড়সহ রানের জবাব দিতে নেমে হাসান আলীর বোলিং তোপে রীতিমত বিধ্বস্ত, কোণঠাসা স্বাগতিকরা।

আগের ম্যাচে ইনিংস ব্যবধানে জয়ী পাকিস্তান এই ম্যাচেও টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথম দিনই শতক পূর্ণ করেন আজহার আলী ও আবিদ আলী। প্রথম দিন শেষে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন আবিদ। দ্বিতীয় দিনে দেড়শর মাইলফলক স্পর্শের পর পূর্ণ করেন দ্বিশতকও।

মিডল অর্ডারে ভালো সঙ্গী না পেলেও শেষদিকে আবিদকে দারুণ সমর্থন যুগিয়েছেন নোমান আলী। ব্যাট হাতে ১০৪ বলে ৯৭ রান করে শতক হাতছাড়ার আক্ষেপ নিয়ে সাজঘরে ফিরলেও পাকিস্তানকে এনে দেন ৫১০ রানের বিশাল পুঁজি। নোমান সাজঘরে ফিরতেই ইনিংস ঘোষণা করেন বাবর আজম। সে সময় ৪০৭ বলের মোকাবেলায় ২১৫ রান করে অপরাজিত থাকেন ২৯টি চার হাঁকানো আবিদ।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে ব্লেসিং মুজারাবানি তিনটি এবং টেন্ডাই চিসোরো দুটি উইকেট শিকার করেন। নাগাভারা, তিরিপানো ও জঙ্গে একটি করে উইকেট লাভ করেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে কোনও রান জড়ো করার আগেই উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। এই চাপ কাটিয়ে না উঠতেই পাকিস্তানি পেস তোপে ব্যাটিং বিপর্যয় হয় ব্রেন্ডন টেলরের দলের। ৩১ ওভারেই কেভিন কাসুজা, তারিসাই মুসাকান্দা, টেলর ও মিল্টন শুম্বাকে হারিয়ে দলটির সংগ্রহ মাত্র ৫৩ রান। সেখান থেকে আরও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি স্বাগতিকরা।

৭৭ রানে সপ্তম উইকেট হারানোর পর ১০৯ রানে হারায় নবম উইকেট। পরে রিচার্ড নাগারাভার ১৪ বলে ১৫ রানের সুবাদে ১৩২ রান তুলতেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। এর মাঝে রেগিস চাকাভা সর্বোচ্চ ৩৩ রান করে আউট হন। এছাড়া ডোনাল্ড তিরিপানোর ব্যাট থেকে আসে ২৩টি রান। আর এতেই ৩৭৮ রানে পিছিয়ে থেকে আবারও ফলোঅনে পড়লো স্বাগতিক দল।

পাকিস্তানি বোলারদের মধ্যে একাই ৫ উইকেট শিকার করেন পেসার হাসান আলী। ১৩ টেস্টের ক্যারিয়ারে এটা তার পঞ্চম পাঁচ বা ততোধিক উইকেট শিকার। এছাড়া অফ স্পিনার সাজিদ খান ২টি এবং শাহীন শাহ আফ্রিদি ও অভিষিক্ত তাবিশ খান একটি করে উইকেট শিকার করেন।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত